বিয়ের ছয় দিন পর টাকা-স্বর্ণালংকার নিয়ে পালালেন স্ত্রী!

0
102

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজে’লায় প’রকীয়ার জেরে স্বা’মীকে ছেড়ে নাছের হাওলাদার নামে এক যুবকের স’ঙ্গে পা’লিয়ে যান এক গৃ’হবধূ। তবে পা’লিয়ে বিয়ে করার ছয় দিন পর তার টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে ওই গৃ’হবধূ পা’লিয়ে গেছেন বলে অ’ভিযোগ করেছেন নাছের।

এদিকে, নাছেরের বি’রুদ্ধে অ’পহরণ ও ধ’র্ষণের অ’ভিযোগে মা’মলা করেছেন ওই গৃ’হবধূর মা। মা’মলা হওয়ায় পু’লিশের ভ’য়ে বর্তমানে এলাকা ছাড়া ওই যুবক।

জানা যায়, উপজে’লার বাহাদুরপুর (মাগুড়া) এালাকার এম’দাদ হাওলাদারের ছেলে নাছের হাওলাদার ঘোশের হাট বাজারে মোবাইল মেরামত করতে গেলে ওই দোকানে বসে পগৌরনদী উপজে’লার বাকাই (ইছাগুড়ি) এলাকার ওই গৃ’হবধূর স’ঙ্গে পরিচয় হয়।

পরিচয়ের সূত্রে প্রথমে মোবাইলে কথা হয়, পরে ইমোতে তারা ছবি আদান-প্রদান করেন। একপর্যায়ে তারা দুজন প’রকীয়া প্রেমের সম্প’র্কে জড়িয়ে পড়েন।

চার মাস প্রেম করার পর গত ১১ অক্টোবর ওই গৃ’হবধূ তার প্রথম স্বা’মীকে তালাক দিয়ে নাছেরের স’ঙ্গে পা’লিয়ে যান। পরের দিন ১২ অক্টোবর শরিয়তপুর জে’লার পালং ইউপির বিয়ের রেজিস্ট্রার কাজী মাওলানা মো. আবুল হাসান শেখের কাছে বিয়ের রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করেন তারা।

বিয়ের পর ছয়দিন সংসার করে গত ১৮ অক্টোবর নাছেরের ৭৫ হাজার টাকা ও সাড়ে তিন ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের গহনা নিয়ে ওই গৃ’হবধূ পা’লিয়ে গৌরনদীতে তার মায়ের কাছে চলে আসেন। ওই দিনই ওই গৃ’হবধূর মা বা’দী হয়ে গৌরনদী মডেল থানায় একটি না’রী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আইনে মা’মলা দা’য়ের করেন। ওই মা’মলায় পু’লিশের ভ’য়ে এলাকা ছাড়া হয়ে পালতক রয়েছে নাছের।

এ ঘ’টনায় নাছের মুঠোফোনে বলেন, ভালোবাসার নামে ছলনা করে আমাকে বিয়ে করে ওই না’রী আমার টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে পলিয়েছে। ওই না’রীর মা মি’থ্যা মা’মলা দিয়ে আমাকে হ’য়রানি করতেছে, যাতে আমি টাকা ও স্বর্ণালংকার ফেরত না নিতে পারি। আমিও তার বি’রুদ্ধে আ’দালতে মা’মলা দা’য়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি।

মা’মলার বা’দী বলেন, নাছের আমার মে’য়েকে জো’র করে তুলে নিয়ে যায়। ছয় দিন পর সেখান থেকে আমার মে’য়ে পা’লিয়ে এসে জানানোর পর গৌরনদী মডেল থানায় মা’মলা করা হয়েছে। বর্তমানে আমার মে’য়ে তার স্বা’মী আবুল বাসারের কাছে ঢাকায় রয়েছে।

নাছেরের টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে মে’য়ের পালানোর অ’ভিযোগের বি’ষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, এ বি’ষয়ে তিনি কিছু জানেন না এবং এ বি’ষয়ে তিনি কথা বলতে চান না।

মা’মলা ত’দন্তকারী কর্মকর্তা গৌরনদী থানার এসআই কামাল হোসেন জানান, এক না’রী তার মে’য়েকে ধ’র্ষণ ও অ’পহরণের অ’ভিযোগে মা’মলা করেছেন। মা’মলাটি ত’দন্তাধীন রয়েছে। আ’সামিকে গ্রে’ফতারের চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here