একনজরে দেখেনিন যেসব কারণে মি`ন্নির ফাঁ`সির রা`য়

0
106

আয়েশা সিদ্দিকা মি`ন্নির কারণে ব`হুল আলোচিত হ`ত্যাকা`ণ্ডে হ`তভাগা রি`ফাত শ`রীফ নি`র্মমভাবে খু`ন হয়েছেন এবং তার বাবা-মা পু`ত্রহারা হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন আ`দালত। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে রি`ফাত হ`ত্যা মা`মলার প্রা`প্তব’য়স্ক ১০ আ`সামির `রায়ের প`র্যবেক্ষণে এমন মন্তব্য করেছেন ব`রগুনার জে’লা ও দা`য়রা জজ আ`দালত। শনিবার (৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রিফাত হ`ত্যা মা`মলার পূ`র্ণাঙ্গ রা`য় প্র`কাশিত হয়।

৪২৯ পৃষ্ঠার রা`য়ের কপি থেকে এ ত’থ্য জানা গেছে।এদিকে, এই হ`ত্যা মা`মলার রা`য়ের পূ`র্ণাঙ্গ কপি সর্বপ্রথম হাতে পেয়েছেন মা`মলার অ`ন্যতম আ`সামি ও ফাঁ`সির দ`ণ্ডপ্রা’প্ত রি`ফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মি`ন্নির বাবা মো. মোজাম্মেল হোসেন কি`শোর। রা`য়ের প`র্যবেক্ষণে আ`দালত উল্লেখ করেছেন, আ`সামি রি`ফাত ফরাজী, রাব্বি আকন, সিফাত, টিকটক হৃদয়, মো. হাসান এবং মি`ন্নি পূর্ব-প`রিকল্পিতভাবে রি`ফাত শ`রীফকে হ`ত্যা করেছেন। এটি স`ন্দে’হাতীতভাবে প্র`মাণিত হয়েছে।

তাই ৩০২ ধারায় মৃ`ত্যুদ’ণ্ড অথবা যা`বজ্জীবন কা`রাদ’ণ্ড এবং তৎসহ অর্থদ`ণ্ডের বিধান রয়েছে। ৩৪ ধারা মূ’লত স্ব`তন্ত্রভাবে শা`স্তির বি`ধান আ`রোপকারী কোনো ধারা নয়। এ ধারা অ`পরাধের মূ’ল শা`স্তি আরোপকারী অন্যান্য ধা`রার প`রিপূরক।এতে বলা হয়েছে, কতিপয় ব্যক্তি মিলে তাদের অভিন্ন উদ্দেশ্যে বাস্তবায়নের জন্য কোনো কাজ করলে সেই অ`পরাধের জন্য তাদের প্রত্যেকে, সে একা ওই কাজ করলে যে`ভাবে দায়ী হবে, ঠিক তেমনি সবাই একইভাবে দায়ী হবে।

তাই এই আইন অনুসারে এ মা`মলার ভি`কটিম রি`ফাত শ`রীফকে খু`ন করার দায়ে আ`সামিরা স`মানভাবে দায়ী।রা`য়ের পর্য`বেক্ষণে আরও উল্লেখ করা হয়, এ মা`মলার আ`সামি মি`ন্নি এই ঘ`টনার প`রিকল্পনার মূ’ল উ`দ্যোক্তা এবং তার কারণে হতভাগা রি`ফাত শরীফ নি`র্মমভাবে খু`ন হয়েছেন; এর মধ্য দিয়ে রি`ফাতের বাবা-মা পু`ত্রহারা হয়েছেন। তাই মি`ন্নির দৃ`ষ্টান্তমূ’লক শা`স্তি না হলে তাকে অ`নুসরণ করে তার মতো মেয়েদের বি`পথগামী হওয়ার আ`শঙ্কা থাকবে। তাই মিন্নির দৃ`ষ্টান্তমূ’লক শা`স্তি হওয়া বাঞ্ছনীয়।আ`দালত আরও বলেন, প্রকাশ্যে রা`ম’দা দিয়ে নি`র্মমভাবে কু`পিয়ে এই হ`ত্যাকা`ণ্ড ম`ধ্যযুগীয় ব`র্বরতাকে হার মা`নিয়েছে।

ত`থ্যপ্রযুক্তি ও `সামাজিক যো`গাযোগ মাধ্যমে সবাই এই হ`ত্যাকা`ণ্ড প্রত্যক্ষ করেছেন। তাই তাদের উ`পযুক্ত শা`স্তি না হলে দেশের যুবসমাজ ভু’লপথে অগ্রসর হওয়ার আ`শঙ্কা থাকে। ফলে তাদের দৃ`ষ্টান্তমূ’লক শা`স্তি হওয়া বা`ঞ্ছনীয়।রা`য়ের কপি হাতে পাওয়ার পরই উচ্চ আ’দালতে আ`পিল করার জন্য ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন মি`ন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কি`শোর।রা`য়ের কপি নিয়ে আ`গামীকাল রবিবার (০৪ অক্টোবর) সকালে মি`ন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কি`শোর সু`প্রিম কো`র্টের আ`ইনজীবী অ্যাডভোকেট জেড আই খান পান্নার চেম্বারে যাবেন বলে জানা গেছে।

তবে এ বি’ষয়ে মি`ন্নির বাবার স’ঙ্গে যোগাযোগ করা হলে মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।এ বি’ষয়ে ব`রগুনা আ`দালতে দা`য়িত্বে থাকা মি`ন্নির আ`ইনজীবী অ্যাডভোকেট মাহবুবুল বারী আসলাম বলেন, শ`নিবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে মি`ন্নির বাবা রা`য়ের ক`পি হাতে পেয়েছেন। কপি পাওয়ার পরপরই তিনি ঢাকার উদ্দেশ্যে ব`রগুনা ছেড়েছেন। সময় স্বল্পতার কারণে রায়ে আ`দালত কি উল্লেখ করেছেন তা পড়তে পারিনি আমি। তবে আগামীকাল রোববার এ নিয়ে উচ্চ আ’দালতে আ`পিলের জন্য আবেদন করবেন বলে আমাকে বলেছেন মি`ন্নির বাবা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here