সাকিবের পর ফিক্সিং এর দায়ে আরো দুই বাংলাদেশী ক্রিকেটার

0
101

ক্রিকে’টে ম্যাচ ফিক্সিং যেন এক কলঙ্কিত অধ্যায়। অর্থের বিনিময়ে ম্যাচকে প্রভাবিত করা অবশ্য ক্রিকে’টে নতুন কিছু নয়। তবে এ ব্যাপারে এখন বেশ ক’ঠোর অবস্থানেই রয়েছে বিশ্ব ক্রিকে’টের নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

ফলে ক্রিকেটারদের ফিক্সিং এখন যে ব্যাপক মাত্রায় কমেছে সেটা বলাই যায়।বিশ্বের অন্যান্য দেশের ক্রিকেটারদের মত বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের গায়েও লেগেছে ফিক্সিংয়ের কলঙ্ক।

সব শেষ এই তালিকায় অলরাউন্ডার সাকিব আল আসান। ফিক্সিং না করলেও ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গো’পন করায় তাকে নি’ষেধাজ্ঞায় থাকতে হয়েছে এক বছরের।

এদিকে নি’ষিদ্ধ হবার আগে দেশের ক্রিকেটারদের আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন সাকিব। ফলে সেই তীব্র আন্দোলনের পর পরই সাকিবের নি’ষেধাজ্ঞা দেয়ার কারনে নেটিজেনরা আঙুল তুলেছিলেন বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপনের দিকে।

তাছাড়া সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি প্রে’সিডেন্টের দেয়া বক্তব্যে তিনি যখন বলেছিলেন ‘ম্যাচচ ফিক্সিংয়ের খবর শীঘ্রই আসবে’ সেটা নিয়েও পরবর্তীতে সৃষ্টি হয়েছিল নানা প্রশ্ন।

তবে পাপন এবার নিজের সেই বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়েছেন। ইউটিউব চ্যানেল ‘নট আউট নোমান’-এ এসে নাজমুল হাসান পাপন নিজের অবস্থান পরিষ্কার করে জানিয়েছেন ফিক্সিংয়ের খবর আগে থাকলেও ক্রিকেটারদের আন্দোলনের পর তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

তার ভাষ্য, ‘’ফিক্সিংয়ের খবর আছে। ওগুলো এখন বন্ধ হয়ে গেছে। বন্ধ করে দিয়েছি। সত্যি কথা বলি, আমরা কিছু ত’দন্ত করেছিলাম। ও সবের (ক্রিকেটারদের আন্দোলন) পর বন্ধ করে দিয়েছি সত্যি কথা।

এগুলো নিয়ে এখন আর কথা বলতে চাই না।‘’অন্যদিকে সাকিবের নি’ষেধাজ্ঞার ব্যাপারে বোর্ডকে আগে কিছুই জানান নি সাকিব নিজে। শুধু সাকিব নয়,

এর বাইরে আরও তিন ক্রিকেটারের কাছ থেকে আইসিসির এন্টি করাপশন ইউনিট (আকসু) ইন্টারভিউ নিয়ে গেছেন বলেও জানান পাপন। তিনি বলেন,‘’এ জিনিসটা কেন ও (সাকিব) জানায়নি আমি জানি না।

শুধু তাই না, পরে আমি শুনতে পারলাম শুধু ও না, বাংলাদেশে এসে আরও তিন জনের ইন্টারভিউ নিয়ে গেছে আকসু। ওই তিন জন এখনও কিছু বলেনি আমাকে।‘’সূত্রঃ-সিটি২৪নউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here