মে’য়ের প্রে’মিকের বিয়ের প্রস্তাব, ঠিকাদারের গু’লি

0
160

মে’য়ের প্রে’মিকের বিয়ের প্রস্তাবে ক্ষি’প্ত হয়ে খুলনা মহানগরীর মিস্ত্রী’পাড়ায় ঠিকাদার শেখ ইউসুফ আলী গু’লি করেন বলে অ’ভিযোগ উঠেছে।

ঠিকাদারের দা’য়ের করা মা’মলা ও দাবি করা সব ত’থ্য মি’থ্যা বলে দাবি করেছেন চাঁ’দাবাজির অ’ভিযোগে অ’ভিযু’ক্ত চার যুবকের স্বজনরা।

গত শুক্রবার (২৮ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঠিকাদার শেখ ইউসুফ আলীর বাড়ি গিয়েছিল তার মে’য়ের প্রে’মিক ও প্রে’মিকের বন্ধুরা। তাদের পরিচয় পেয়ে ক্ষি’প্ত হয়ে হু’মকি দেন ঠিকাদার। পরিস্থিতি খা’রাপ বুঝে বাড়ির লোকেরা তাদের বের হয়ে যেতে বলে।

তারা বের হতে না হতেই পি’স্তল হাতে বেরিয়ে পড়েন ঠিকাদার। ক্ষি’প্ত হয়ে তিনি তাদের লক্ষ্য করে গু’লি ছো’ড়ে। গু’লির শব্দ শুনে পাশের বাড়ির স্কুল পড়ুয়া লামিয়া কৌতুহলবশত ঠিকাদারের বাড়ির সামনে যায়। এমনি সময় লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে একটি গু’লি বিদ্ধ হয় শি’শু লামিয়ার বাম পায়ে।

এমন ঘ’টনাই ঘটেছিল শুক্রবার মিস্ত্রী’পাড়ার ঠিকাদার ইউসুফ আলী সরদারের বাড়িতে। তবে এ ঘ’টনা থেকে নিজেকে রক্ষা করতে ঘ’টনাটি ভিন্ন খাতে নিতে ঠিকাদার চাঁ’দাবাজির অ’ভিযোগ এনে মা’মলা করেছেন বলে দাবি করেছেন তার মে’য়ের কথিত প্রে’মিক ও প্রে’মিকের বন্ধুদের স্বজনরা।

ঠিকাদার ইউসুফ আলী জানান, ঠিকাদারি একটি কাজ নিয়ে চার যুবক তার কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁ’দা দাবি করার এক পর্যায়ে তাকে প্রা’ণনাশের হু’মকি দিলে তিনি পি’স্তল নিয়ে তাদের ধা’ওয়া করেন।

এ সময় পি’স্তলে তিন রাউন্ড গু’লি ছিল। তিনি দুই রাউন্ড গু’লি ছো’ড়েন। ওই চার যুবকও দৌড়ে পা’লিয়ে যাওয়ার সময় গু’লি করেছিলো। তাদের গু’লি লামিয়ার পায়ে বিদ্ধ হয়েছে।
ঠিকাদার মা’মলার এজাহারে উল্লেখ করেন, মিস্ত্রিপাড়া আরাফাত জামে ম’সজিদের পাশের ঠিকাদার ইউসুফ আলী বাবু খান রোডের সংস্কারের কাজ পেয়েছেন।

কিছু দু’ষ্কৃতকারী এ কাজটির জন্য তাকে চা’প দিচ্ছিলো। দু’ষ্কৃতকারীরা কাজটা কিনতে চায়। তারা চাঁ’দা নিতে গেলে তিনি গু’লি ছো’ড়ে। তবে ঠিকাদারের দা’য়ের করা মা’মলা ও দাবি করা সব ত’থ্য মি’থ্যা বলে অ’ভিযোগ করেছেন ওই চার যুবকের স্বজনরা।

তারা জানিয়েছেন, ঠিকাদার ইউসুফ আলীর মে’য়ে রুকাইয়া বানরগাতির সোহরাওয়ার্দী কলেজে পড়েন। রুকাইয়ার স’ঙ্গে শাহিদ নামে একটি ছে’লে দীর্ঘদিন ধরে প্রে’মের স’ম্পর্ক ছিল। ঠিকাদার তার পছন্দের ছে’লের স’ঙ্গে মে’য়ের বিয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। মে’য়ের মোবাইল ফোনও কেড়ে নিয়েছিলেন তিনি। কয়েকদিন মোবাইল ফোন বন্ধ পেয়ে প্রে’মিক শাহেদ তার তিন বন্ধু মেহেদি, ইসমাইল ও সাইফুলকে নিয়ে যান ইউসুফ আলীর বাড়িতে।

প্রে’মিকা রুকাইয়ার বাবা ঠিকাদার ইউসুফকে তারা র্দীঘদিনের প্রে’মের স’ম্পর্কের কথা খুলে বলেন। এমন সময় ইউসুফ ক্ষি’প্ত হয়ে প্রথমে তাদের গা’লিগা’লাজ শুরু করেন। তখন সেখানে উপস্থিত রুকাইয়ার মামা তাদের বের হয়ে যেতে পরাম’র্শ দেন। তারা বের হয়ে দরজা পর্যন্ত আসার পরে ইউসুফ পি’স্তল নিয়ে বের হয়ে গু’লি ছো’ড়েন।

সাইফুলের মামা সোহেল বলেন, আমা’র ভাগিনা ও তার বন্ধুদের ও’পর সম্পূর্ণ বে-আইনি ভাবে গু’লি ছু’ড়েছেন ঠিকাদার ইউসুফ। আবার তাদের বি’রুদ্ধে চাঁ’দাবাজির মা’মলাও দা’য়ের করেছেন। আম’রা আইনি পদক্ষেপের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এদিকে ঠিকাদার ইউসুফ আলীর বাড়ির সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, ওই চার যুবক প্রথমে দরজা দিয়ে স্বাভাবিক ভাবে বের হচ্ছিলেন। তখন পি’স্তল নিয়ে ছুটে আসেন ঠিকাদার ইউসুফ। ঠিকাদারকে মে’য়ের মামা গু’লি না করা জন্য বা’ধা দেন। তাকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দিয়ে ইউসুফ গু’লি ছো’ড়েন এবং সিঁড়ি দিয়ে তাদের পিছু পিছু তাড়া করতে থাকেন।

খুলনা সদর থা’নার ভা’রপ্রা’প্ত কর্মক’র্তা (ওসি) আশরাফুল আলম বলেন, ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করে চার জনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। আম’রা ঘ’টনাটি আরও ত’দন্ত করবো। তাহলে আসল ঘ’টনা জানা যাবে।

এদিকে ঠিকাদারের লক্ষ্যভ্রষ্ট গু’লিতে আ’হত লামিয়া খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতা’লে ভর্তি রয়েছে। রোববার রাত ৮টা পর্যন্ত তাকে অ’স্ত্রোপা’চার করা হয়নি।

লামিয়ার প্রতিবেশি মামা তরিকুল ইস’লাম জানান, লামিয়া ব্য’থার যন্ত্র’ণায় ছ’টফট করছে। এখনও তার পায়ের গু’লি বের করা হয়নি। আম’রা খুবই চিন্তায় রয়েছি।

চিকিৎসকরা বলছেন, লামিয়ার থ্রি-ডি সিটি স্ক্যান এবং হাই আল্ট্রাসনোগ্রাম পরীক্ষা করা হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর সি’দ্ধান্ত হবে খুলনায় অ’পারেশন হবে কি- না? গু’লির অবস্থান নির্ণয় করে পরবর্তী সি’দ্ধান্ত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here