মায়ের কোলে শি’শুর মতোই শেখ হাসিনার হাতে বাংলাদেশ নিরাপদ: আতিউর রহমান আতিক

0
768

পরিবারের সব সদস্যকে হা’রানো শো’ককে বুকে নিয়েই বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি এই ক’রোনা কালেও সাহসী ভূমিকার কারণে একজন মানুষও না খেয়ে ম’রেনি। দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপে এসব কথা বলেন আলোচকরা।

রোববার আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সং’সদের হুইপ এবং শেরপুর সদর আসনের সং’সদ সদস্য আতিউর রহমান আতিক, সং’সদ সদস্য এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার এবং এফবিসিসিআই পরিচালক হাবিব উল্লাহ ডন। ভোরের পাতা সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় অনুষ্ঠানের সঞ্চলনা করেন সাবেক ত’থ্য স’চিব নাসির উদ্দিন।

আতিউর রহমান আতিক বলেন, এই আগস্ট মাসটার সাথে আমাদের অনেক স্মৃ’তি বিজরিত। এই মাসে শেখ কামাল ভাইয়ের জ’ন্ম’দিন ৫ আগস্ট। বঙ্গমাতার জ’ন্ম’দিন ৮ আগস্ট। জ’ন্ম’দিনে আমরা মিলাদ মাহফিল করি।

দেখু’ন আপনারা, এই আগস্ট মাসেই ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টেও ষ’ড়যন্ত্রকারীরাই আবার ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রে’নেড হা’মলা চা’লিয়েছিল। তারাই ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সারাদেশে ৬৩ জে’লায় ৫ শতাধিক বো’মা হা’মলা চা’লিয়েছিল বিএনপি-জামায়াত স’রকারের সরাসরি পৃষ্ঠপোষকতায়। বঙ্গবন্ধুর হ’ত্যার পর এদেশকে তারা আবারো পাকিস্তানি ভাবধারায় চা’লিয়েছিল।

কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। এই ক’রোনা সং’কটের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষকে সব সময় সাহস দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি কৃষক, ইমাম’দের জন্যও প্রণোদনা দিয়েছেন। এইদেশে যতই ষ’ড়যন্ত্র হোক না কেন, শেখ হাসিনার স’রকার সেগুলো প্রতিহত করে এগিয়ে যাবে।

আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, একটি শি’শু মায়ের কোলে যেমন নিরাপদ তেমনি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের সকল মানুষই তেমন নিরাপদ। আমি মনে করি বঙ্গবন্ধু আর বাংলাদেশ একে অপরের পরিপূরক। ৪ হাজারেরও বেশি দিন তিনি এদেশের স্বাধীনতার জন্য কারাবরণ করেছিলেন। তিনিই একটি নিরস্ত্র জাতিকে যোদ্ধায় পরিণত করেছিলেন।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরিপূর্ণতা পায় ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি তার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে। কিন্তু একটি ষ’ড়যন্ত্রকারী দল বঙ্গবন্ধুকে মেনে নিতে পারেনি। তারাই বঙ্গবন্ধুকে হ’ত্যা করেছিল।

আজকে স্বাধীনতার ৫০ বছরে বাংলাদেশে স্বাধীনতার বি’রোধী চ’ক্রের সাথে আমাদের কথা বলতে হচ্ছে। এই সুযোগ করে দিয়েছিল জিয়াউর রহমান। বঙ্গবন্ধু হ’ত্যাকাণ্ডের পর ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারির মাধ্যমে জিয়াউর রহমান খু’নিদের পুরষ্কৃত করেছিল। তাই জিয়াউর রহমানেরও বিচার হওয়া প্রয়োজন। এই জিয়াউর রহমান সে’নাবা’হিনীর হাজার হাজার মানুষকে হ’ত্যা করেছে। এই ঘ’টনারও বিচার করা প্রয়োজন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here