প্রে’মিকের কাছ থেকে প্রে’মিকাকে ছি’নতাই করে সংঘবদ্ধধ’র্ষণ

0
103

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজে’লায় প্রে’মিকের কাছ থেকে প্রে’মিকাকে ছি’নতাই করে গণধ’র্ষণের ঘ’টনা ঘটেছে। এ ঘ’টনায় পাঁচজনকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ।

সোমবার (২৭ জুলাই) দুপুরে ঘ’টনার সত্যতা নিশ্চিত করেন গোবিন্দগঞ্জ থানা পু’লিশের ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মেহেদী হাসান। এর আগে ভোরে মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের নাওভাংগা গ্রামে অ’ভিযান চা’লিয়ে তাদের গ্রে’ফতার করা হয়।

গ্রে’ফতাররা হলেন- গোবিন্দগঞ্জ উপজে’লার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের নাওভাংগা গ্রামের নীল মাহমুদের ছেলে এনামুল হক (৩০), আজিম উদ্দিনের ছেলে রেজাউল (৩২), ভোলা মিয়ার ছেলে ধলু মিয়া (২৫), এজাদুর রহমানের ছেলে সুমন মিয়া (২৩) ও সাহারুল কাজির ছেলে সাদ্দাম ওরফে সুজন কাজি (২৬)। এই গণধ’র্ষণের ঘ’টনায় মা’মলা হয়েছে।

মা’মলার এজাহারের বরাত দিয়ে পু’লিশ জানায়, মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে গো’পনে বিয়ে করার জন্য গোবিন্দগঞ্জে নিয়ে যাচ্ছিলেন প্রে’মিক। পথিমধ্যে প্রে’মিকের কাছে থেকে প্রমিকাকে ছি’নতাই করে নিয়ে যান পাঁচ যুবক। এরপর ধলু মিয়ার বাড়িতে নিয়ে রাতভর স্কুলছাত্রীকে পালাক্রমে ধ’র্ষণ করে তারা।

সোমবার ভোরে বি’ষয়টি গোবিন্দগঞ্জ থানা পু’লিশকে জানায় প্রে’মিক যুগল। এরপর অ’ভিযান চা’লিয়ে সাদ্দামকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ। সাদ্দামের দেয়া ত’থ্যমতে অন্য চার ধ’র্ষককে গ্রে’ফতার করা হয়।

গোবিন্দগঞ্জ থানা পু’লিশের ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মেহেদী হাসান বলেন, স্কুলছাত্রীকে ছি’নতাইয়ের পর গণধ’র্ষণের ঘ’টনায় মা’মলা হয়েছে। এ ঘ’টনায় পাঁচজনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। ধ’র্ষণের শি’কার স্কুলছাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। একই স’ঙ্গে ধ’র্ষকদের স্বী’কারোক্তিমূ’লক জবানব’ন্দি গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here