তিন দেশের পানিতে হবে বন্যা, ডুবে যাবে দেশের ২৩টি জে’লা

0
173

ভা’রতের মেঘালয়, চেরাপুঞ্জি, আসাম ও ত্রিপুরা এবং চীন ও নেপালের পানি এসে দেশে ব’ন্যার সৃষ্টি করেছে বলে জানিয়েছেন দু’র্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান।ব’ন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের ত’থ্য দিয়ে প্রতিমন্ত্রী জানান, গত ২৭ জুন থেকে যে ব’ন্যা শুরু হয়েছিল তা আগাম ব’ন্যা ছিল। সেটা ৬ ও ৭ জুলাই থেকে উন্নতি লাভ করেছে।

কিন্তু ১১ জুলাই থেকে ফের বাড়তে শুরু করেছে। আগামী ১৭ জুলাই সর্বোচ্চ বাড়বে এবং এক থেকে দুই সপ্তাহ স্থায়ী হবে। ২৩টি জে’লায় ব’ন্যা বিস্তৃতি লাভ করবে।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) স’চিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে সার্বিক ব’ন্যা পরিস্থিতি বি’ষয়ে এক অনলাইনে ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী। এসময় মন্ত্রণালয়ের স’চিব মো. মহসিন উপস্থিত ছিলেন।

ব’ন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কী’করণ কেন্দ্রের ত’থ্য তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, পদ্মা নদ-নদীর পানি বাড়ছে। আগামী ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত এ বৃ’দ্ধিটা অব্যাহত থাকবে।

আগামী ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদীর পানি আরিচা পয়েন্টে বিপৎসীমা অ’তিক্রম করবে।তিনি বলেন, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, দিনাজপুর, বগুড়া, জামালপুর, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল, নাটোর, নওগাঁ, মুন্সিগঞ্জ, ফরিদপুর, মাদারীপুর, রাজবাড়ী ও ঢাকা জে’লার নিম্নাঞ্চলের ব’ন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।এ মুহূর্তে ব’ন্যাকবলিত জে’লার সংখ্যা ১৭টি জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মোট ব’ন্যাকবলিত ইউনিয়নের সংখ্যা ৪৬৪টি,

পানিব’ন্দি পরিবারের সংখ্যা ২ লাখ ৯৪ হাজার ২৭৪টি, ব’ন্যায় মোট ক্ষ’তিগ্রস্ত লোকের সংখ্যা ১৪ লাখ ৫৭ হাজার ৮২৭ জন।তিনি বলেন, স’রকারের ত্রাণ সহায়তা চা’লিয়ে যাওয়ার মতো সক্ষ’মতা আছে। আরও যত বড় দু’র্যোগ আসুক না কেন, দু’র্যোগ যত দীর্ঘস্থায়ী হোক না কেন, দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের ত্রাণ সহায়তা দেওয়ার মতো সক্ষ’মতা আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনা স’রকারের আছে।

সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি আমাদের মাঠ প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধি, দলীয় নেতা-কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকরা যদি ত্রাণ প্রস্তুত ও বিতরণের কাজে অংশগ্রহণ করে তাহলে অ’তীতে যেমন বড় বড় ব’ন্যা মো’কাবিলা করেছি, একইভাবে এবারও মো’কাবিলা করতে পারবো। মানুষের দুঃখক’ষ্ট লাঘব করতে পারবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here