ক’রোনারোধী অ্যান্টিবডি তৈরি করছে অ্যাস্ট্রা জেনিকা

0
103

ভ্যাকসিন তৈরির প্রচেষ্টার পাশাপাশি শক্তিশালী ক’রোনারোধী অ্যান্টিবডি তৈরি করছে অ্যাস্ট্রা জেনিকা ব্রিটিশ ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট ‘অ্যাস্ট্রা জেনিকা’। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের তৈরি প্রতিষেধকটির উৎপাদনের কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছে।

প্রথম দু’টি ‘হিউম্যান ট্রায়াল’-এ অভূতপূর্ব সাফল্যের পর অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের তৈরি প্রতিষেধক ChAdOx1 nCoV-19-এর চূড়ান্ত পর্বের সাফল্যের বি’ষয়ে যথেষ্ট আশাবা’দী ‘অ্যাস্ট্রা জেনিকা’।

তবে শুধু ক’রোনা প্রতিষেধকের আগাম উৎপাদন শুরু করেই থেমে নেই ‘অ্যাস্ট্রা জেনিকা’র বিজ্ঞানীরা। ক’রোনার রুখতে স’ক্ষম অ্যান্টিবডি আবি’ষ্কার করতে চলেছেন তারা। ক’রোনার বি’রুদ্ধে শক্তিশালী অ্যান্টিবডি আবি’ষ্কারের প্রায় দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে ‘অ্যাস্ট্রা জেনিকা’র বিজ্ঞানীরা।

রবিবার এ কথা একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন সংস্থার কার্যনির্বাহী প্রধান পাস্কাল সরিওট।

সংস্থার বিজ্ঞানীরা জানান, ক’রোনা আ’ক্রান্ত ব্যক্তিকে সং’ক্র’মণের প্রাথমিক পর্যায়ে এই অ্যান্টিবডি দেওয়া গেলে ভাই’রাসের বি’রুদ্ধে সবচেয়ে ভাল ফল মিলবে। দুটি অ্যান্টিবডির সমন্বয় ই’নজেকশনের মাধ্যমে আ’ক্রান্তের শ’রীরে প্রবেশ করানোর কথা ভাবছেন বিজ্ঞানীরা।

তাদের দাবি, এর ফলে একটি অ্যান্টিবডির বি’রুদ্ধে ভাই’রাসের পাল্টা প্রতিরোধ ক্ষ’মতা গড়ে ওঠার সম্ভাবনা অন্য অ্যান্টিবডির মাধ্যমে প্রতিহত করা যাবে।

ক্রমশ ভ’য়াবহ হতে থাকা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এখন থেকেই অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের তৈরি টিকা উৎপাদনের কাজ প্রাথমমিক ভাবে শুরু করে দিয়েছে সংস্থা। পরে জুলাই মাসে চূড়ান্ত পর্বের ফলফল জানার পর টিকার উৎপাদন বাড়ানো হবে। সংস্থা জানিয়েছে, সব ঠিকঠাক চললে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই এই প্রতিষেধকের অন্তত ২০০ কোটি ডোজ বিশ্ব বাজারে আনার লক্ষমাত্রা সামনে রেখে প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে।

এদিকে ক’রোনা-রোধী এই অ্যান্টিবডির বি’ষয়ে ‘অ্যাস্ট্রা জেনিকা’ জানিয়েছে, আগামী বছরের গোড়াতেই হয়তো এটি পাওয়া যাবে। তবে প্রতিষেধক বা ও’ষুধের তুলনায় অ্যান্টিবডির মাধ্যমে ক’রোনার চিকিৎসা অনেকটাই ব্যয়বহুল হবে বলে জানিয়েছে সংস্থা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here