যেভাবে করোনা নিয়ে গবেষণায় নতুন পথ দেখাবে কৃত্রিম ফুসফুস

0
277

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবের প্রধান কেন্দ্রবিন্দু মানুষের ফুসফুস। এমন খবর মিলেছে বিভিন্ন গবেষণায়। ফুসফুসে আক্রমণে শ্বাসকষ্ট অনুভব হয়েই অনেক করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি মারা যান। তাই কীভাবে করোনাভাইরাস মানুষের ফুসফুসের টিস্যুকে সংক্রমিত করে তা দেখতে কৃত্রিম ফুসফুস নিয়ে গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনের ন্যাশনাল ইমার্জিং ইনফেকটিয়াস ডিজিস ল্যাবরেটরির (এনইআইডিএল) বিজ্ঞানীরা করোনাভাইরাসের সংক্রমণের বিষয়টি জানতে কৃত্রিম ফুসফুস তৈরি করেছেন।

একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের ফুসফুসের মতোই কৃত্রিম ফুসফুস তৈরি করা হয়েছে। ফুসফুসের টিস্যুগুলোতে কীভাবে করোনাভাইরাস আক্রমণ করে তা পর্যবেক্ষণ করতে এ ব্যবস্থা করা হয়েছে। আর এটি কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তিদের ফুসফুস ব্যবচ্ছেদ বা বায়োপসি না করেই সম্ভব হবে।

এনইআইডিএলের সিনিয়র গবেষক অ্যাডাম হিউম বলেন, আমাদের তৈরি করা কৃত্রিম ফুসফুস বিশেষভাবে কার্যকর পরীক্ষামূলক মডেল। এটি মানবদেহের প্রকৃত ফুসফুসের কোষগুলোর সঙ্গে খুবই সাদৃশ্যপূর্ণ। এতে এ মডেলের সাহায্যে ফুসফুসে কী চলছে তা সম্পর্কে আরো ভালো ধারণা পেতে সক্ষম হয়েছি, যা সংক্রমণের প্রধান লক্ষ্য।

বোস্টনের রিজেনারেটিভ মেডিসিন সেন্টারের গবেষকদের সহায়তায় তৈরি করা হয় প্রকৃত ফুসফুসের অনুরূপ কৃত্রিম ফুসফুস। ফুসফুসের কোষের মধ্যে ভাইরাসটি কত দ্রুত বৃদ্ধি পায়, নির্দিষ্ট রোগীদের কেন গুরুতর লক্ষণগুলোর বিকাশ ঘটে তা নির্ধারণ করতে পারবেন হিউম ও তার সহকর্মীরা। এছাড়া কোষগুলো কীভাবে এ সংক্রমণের প্রতিক্রিয়া দেখায় তা খুঁজে বের করার ব্যাপারে আশাবাদী তারা।

কিছু কোভিড-১৯ রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠে। তবে কারো ক্ষেত্রে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে শ্বাস-প্রশ্বাসের জন্য ভেন্টিলেটরের প্রয়োজন পড়ে। ভাইরাসটি কী কারণে গুরুতর রোগীদের সংবেদনশীল করে তোলে তা নিয়ে গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা। হিউমার মতে, কীভাবে করোনাভাইরাস ফুসফুসের টিস্যুকে আক্রমণ করে তা জানতে সহায়তা করবে এ কৃত্রিম ফুসফুস।

তিনি বলেন, এ মুহূর্তে ফুসফুসে করোনার সংক্রমণ দেখতে কৃত্রিম ফুসফুস শুধু একটি মডেল সিস্টেম। পরবর্তী সময়ে কৃত্রিম ফুসফুসের মাধ্যমেই করোনা নিরাময়ের নির্দিষ্ট ওষুধের কার্যকারিতাও পরীক্ষা করে দেখা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here