ফেনীতে পালক বাবার নি’র্যাতনে মে’য়ে অ’ন্তঃসত্ত্বা!

0
409

ফেনীর দাগনভূঞায় দত্তক নেয়া ১৪ বছর ব’য়সী এক মে’য়েকে দিনের পর দিন পাশবিক নি’র্যাতনের অভিযোগ উঠেছে পালক বাবার বি’রুদ্ধে। এমন পাশবিকতার শি’কার ওই মে’য়েটি এখন প্রায় ৪ মাসের অ’ন্তঃসত্ত্বা বলে জানায় র‍্যা’ব।

বি’ষয়টি নজরে আসলে বৃহস্পতিবার (০২ জুলাই) সকালে অ’ভিযুক্ত বাবা মাহমুদুল হক বাচ্চুকে তার বাড়ি থেকে আ’টক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন র‍্যা’ব-৭ ফেনী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মো. নুরুজ্জামান। তাকে আইনি প্রক্রিয়া শেষে দাগনভূঞা থানায় হস্তান্তর করা হবে বলেও র‍্যা’বের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

বুধবার (০১ জুলাই) বি’ষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্র নি’ন্দার ঝড় বয়। দাগনভূঞা উপজে’লার পূর্ব চন্দ্রপুর মডেল ইউনিয়নের উত্তর গজারিয়া গ্রামে এ পাশবিক ঘ’টনাটি ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের ওবায়দুল হকের ছেলে মাহমুদুল হক বাচ্চু (৫০) বিয়ের কয়েক বছর পরও নিজের কোনো স’ন্তান না হওয়ায় স্ত্রী খোতেজা বেগমের অনুরোধে গত ৯ বছর পূর্বে ৫ বছর ব’য়সী মে’য়েটিকে দত্তক নেন। এরপর মায়া মমতা দিয়ে নিজের স’ন্তানের মতো শি’শুটিকে পালন করতে থাকে তারা।

ধীরে ধীরে শি’শু থেকে কৈশোর ও এক পর্যায়ে যৌ’বনে পা রাখে মে’য়েটি। তারপরই মে’য়েটির জীবনে নেমে আসে অমানিশার অন্ধকার। এতদিন যাকে সে বাবা হিসেবে জানতো সে লোকটিই দিনের পর দিন তার উপর জো’র পূর্বক ঝাঁ’পিয়ে পড়ে রাতের আঁধারে। লাজ লজ্জার ভ’য়ে অ’সহায় মে’য়েটি পা’ষ’ণ্ড পালক বাবার অমানবিক নি’র্যাতনের কথা কাউকে কিছু বলতে না পেরে এক পর্যায়ে অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

জুন মাসের প্রথম দিকে মে’য়েটির শা’রীরিক পরিবর্তন লক্ষ করেন মে’য়েটির পালক মা ও খালা। এরপর তারা গত ২৩ জুন মে’য়েটিকে গো’পনে দাগনভূঞা উপজে’লার ইউনিক হাসপাতালে নিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রাফি পরীক্ষা করালে কি’শোরী মে’য়েটি ৪ মাস অ’ন্তঃসত্ত্বা বলে জানতে পারেন তারা।

হাসপাতাল থেকে ফিরে এসে এ নিয়ে বাকবিতণ্ডা করে বাপের বাড়ি চলে যায় বাচ্চুর স্ত্রী খোতেজা। এরপরও প্রকাশ্যে এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে ঘ’টনার মূ’লহোতা। এতে ক্ষি’প্ত হয়ে বি’ষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের অবহিত করেন এলাকাবাসী।

খবর পেয়ে বুধবার (০১ জুলাই) সন্ধ্যার সময় ঘ’টনাস্থলে গিয়ে হাজির হন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ রায়হান। সেখানে গিয়ে তিনি বাচ্চুর স্ত্রী ও মে’য়েটিকে সামনে হাজির করে বি’ষয়টির সত্যতা জানতে পারেন।

দাগনভূঞা ইউনিক হাসপাতালের পরিচালক নাছির উদ্দিন আজাদ মে’য়েটির আল্ট্রাসনোগ্রাফি পরীক্ষার রিপোর্টের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আল্ট্রাসনোগ্রাফি’র সময় মে’য়েটির ব’য়স ১৪ বছর হলেও ১৮ বছর লিখিয়েছে তার সাথে আসা স্বজনরা।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ রায়হান জানান, ঘ’টনাটি সত্য। এ ঘ’টনার দৃষ্টান্তমূ’লক শা’স্তির দাবি জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here