শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উদ্দেশে আসছে জরুরি নির্দেশনা

0
43

ম’হামা’রি ক’রোনার কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। চলমান পরিস্থিতিতে অনেক অভিভাবক তাদের কর্মস্থল থেকে চাকরিচ্যুত হয়েছেন। অনেকের বেতন কমিয়ে দেয়া হয়েছে। অনেকের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চ’রমভাবে ক্ষ’তিগ্রস্ত।

এর মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মাসিক ফির স’ঙ্গে অতিরিক্ত ফি আদায় করা যাবে না। এ বি’ষয়ে চলতি সপ্তাহে নির্দেশনা জারি করা হচ্ছে বলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে জানা গেছে।

মাউশি থেকে জানা গেছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় টিউশন ফি আদায়ে একটি গাইডলাইন তৈরি করা হচ্ছে। এতে শিক্ষার্থীদের মাসিক বেতনের স’ঙ্গে মিলাদ-মহাফিল ফি, বিদ্যুৎ, পানির বিল, ল্যাব ফি, খেলাধুলা ফিসহ বিভিন্ন ফি বাতিল করে শুধু টিউশন ফি আদায় করতে বলা হবে।

এ জন্য ঢাকাসহ দেশের জে’লা শহরগুলোর শীর্ষপর্যায়ের স্কুল-কলেজ থেকে ত’থ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠান অনুযায়ী নানা ধরনের অতিরিক্ত ফি শনাক্ত করে তা বাতিলে চলতি সপ্তাহে নির্দেশনা জারি করা হবে।

বি’ষয়টি নিশ্চিত করে মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ গোলাম ফারুক বলেন, আগামী দুই-তিনদিনের মধ্যে টিউশন ফি সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হবে। তার ভিত্তিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ বেতন আদায় করবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ত’থ্য সংগ্রহ করেছি। কোন প্রতিষ্ঠানে কত আদায় করা হচ্ছে তা চিহ্নিত করা হয়েছে। তার আলোকে প্রতিষ্ঠানভিত্তিক টিউশন ফির স’ঙ্গে অতিরিক্ত ফি বাদ দিয়ে আদায় করতে বলা হবে।

যেসব প্রতিষ্ঠান টিউশন ফি আদায় করছে সেসব প্রতিষ্ঠানে কী ধরনের নির্দেশনা থাকবে- তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, নির্দেশনা জারির আগে যেসব প্রতিষ্ঠানে অর্থ আদায় করা হবে তারা পরবর্তী মাসের স’ঙ্গে সমন্বয় করতে বলা হবে।

শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতনভাতা ও প্রতিষ্ঠান চালাতে অর্থের প্রয়োজন রয়েছে। তাই যারা ক্ষ’তিগ্রস্ত হননি তাদের সম্পূর্ণ অর্থ পরিশোধ করার আহ্বান জানাচ্ছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here