বিয়ের একমাস পার না হতেই পুত্র স’ন্তানের মা হলেন শার্লিন

0
12

মাসখানেক আগে নিজেই বিয়ের কথা জানিয়েছিলেন ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ সিনেমার নায়িকা শার্লিন ফারজানা। গেল বছর ২৩ নভেম্বর এহসানুল হককে বিয়ে করেন শার্লিন। আর তা জানান দেন এ বছরের ১০ অক্টোবর। তারপর মিডিয়াপাড়ায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হয় নবাগত এ মডেল ও অভিনেত্রীকে নিয়ে।

বিয়ের খবরের একমাস পার না হতেই এবার মা হওয়ার খবর জানিয়েছেন শার্লিন। গত ১ নভেম্বর রাত ১০টা ৪৭ মিনিটে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে পুত্রস’ন্তান জ’ন্ম দিয়েছেন তিনি। মা ও ছেলে দুজনই বর্তমানে সুস্থ আছেন।

শার্লিনের ছেলের নাম ইয়াসিন এহসান।শার্লিনের বর এহসানুল হক একজন আইটি বিশেষজ্ঞ ও ব্যবসায়ী। পরিবারের সম্মতিতেই তাদের বিয়ে হয়েছে। বিয়েতে দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

Advertisement

Powered By PLAYSTREAM

২০০৮ সালে ‘ইউ গট দ্য লুক’ সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিজয়ী হয়ে শোবিজে পথচলা শুরু করেন শার্লিন ফারজানা। বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেলিং করে বেশ পরিচিত পান তিনি।

দীর্ঘদিন কাজ করেছেন টিভি নাটকেও।গেল ২৩ অক্টোবর মুক্তি পেয়েছে শার্লিন ফারজানা অভিনীত ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ সিনেমাটি। এতে তার বিপরীতে আছেন ইমতিয়াজ বর্ষণ।

এ সিনেমার মাধ্যমে দীর্ঘদিন পর আবারও আলোচনায় শার্লিন ফারজানা। দেশের সবগুলো অভিজাত হলে চলছে সিনেমাটি। সীমানা পেরিয়ে বিদেশেও মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে এটির।

আরও পড়ুন=চিত্রনায়ক বাপ্পি চৌধুরী চুক্তিবদ্ধ হলেন। হলেন খবরের শিরোনামও। সিনেমার জন্য প্রস্তুতিও নিলেন। কিন্তু কি থেকে কী হল, সিনেমা থেকে সরে দাঁড়ালেন বাপ্পি। তারপর চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক চুক্তিবদ্ধ হলেন।

এবার তিনিও সরে গেলেন। সবশেষ চুক্তিবদ্ধ হলেন আসিফ ইমরোজ।এমনটাই ঘটেছে দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর নতুন সিনেমা ‘তুমি আছো-তুমি নেই’ এর নায়ক নির্বাচনের ক্ষেত্রে।

প্রথমে নায়ক বাপ্পি চৌধুরী ও নায়িকা প্রার্থনা ফারদিন দীঘিকে নিয়ে সিনেমাটি নির্মাণ করা কথা জানান নির্মাতা ঝন্টু। মুহূর্তের মধ্যেই খবরটি ‘টক অব টলিউড’-এ পরিণত হয়। নভেম্বরের শুরুতে এ সিনেমার চিত্রায়ণ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎ খবর এলো- সিনেমাটি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বাপ্পি চৌধুরী।

একদল বলছে, বাপ্পি বাদ পড়েছেন। অন্যদল বলছেন, বাপ্পি সরে দাঁড়িয়েছেন। আসলে কি? জানতে চাইলে বাপ্পি বলেন, আমি আসলে আরেকটি সিনেমার জন্য চুল ছোট করেছিলাম।

যার কারণ এ সিনেমার লুকের স’ঙ্গে আমার বর্তমান লুক যাচ্ছিল না। তাই পরিচালককে বলেছিলাম, কিছুদিন অপেক্ষা করে কাজটি শুরু করতে। তিনি রাজি হচ্ছিলেন না।

তাই, আমি কাজটি ছেড়ে দিয়েছি।বাপ্পি সরে দাঁড়ানোর পর এ সিনেমায় দীঘির বিপরীতে রাজি করানো হয় চিত্রনায়ক সাইমন সাদিককে। এ নিয়েও সংবাদ প্রকাশ হয়েছিল।

কিন্তু হঠাৎ করেই খবর পাওয়া গেল- সিনেমাটি করছেন না সাইমন। কেন এ সিনেমাটি ছেড়ে দিলেন? প্রশ্নের উত্তর জানতে যোগাযোগ করা হয় নায়কের স’ঙ্গে। কিন্তু পাওয়া যায়নি তাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here