স্যার আমাকে এভাবে শেষ করে দিবেন না, ওসি বলে-তোর এখনও ভরা যৌ’বন

0
362

তিন স’ন্তানের জননী (৩০) নিজের স,ম্ভ্রম রক্ষার জন্য আ,কুতি-মি,নতি করেও হৃদয় গ’লাতে পারেনি। স্যার আমার ছেলে মাদরাসায় পড়ে। আমাকে এভাবে শেষ করে দিবেন না। এ সময় ওসি অট্রহাসি দিয়ে বলে-‘তোর

এখনও ভরা যৌ,বন, এ দিয়েই তো চলে’-এই বলে সে আমাকে বি,বস্ত্র করে ফে’লে তার রুমের মধ্যে ধ,র্ষ,ণ করে। সে চলে যাবার পরে থানার গৌ,তম দারো,গাসহ চারজন পু’লিশ রাতভর আমার উপর নি,র্যাতন চা,লায়।

২ জনের সাথে করতে গিয়ে প্রান গেল ৯ম শ্রেনীর ছাত্রীর : চাঁদপুরে ৯ম শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী কাকলি হ’ত্যার র’হস্য উদঘাটন ও ঘা’তককে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। একই স’ঙ্গে নি’হত ছাত্রীর বিচ্ছিন্ন মাথা এবং হ’ত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ধারাল চাকু উ’দ্ধার করা হয়েছে।

মলত তৃমুখী প্রেমের সম্প’র্ককে কেন্দ্র করে নি’র্মম এই হ’ত্যাকাণ্ডের ঘ’টনা ঘটে। শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টায় এমন ত’থ্য নিশ্চিত করেছেন, মতলব উত্তর থানার ওসি নাসির উদ্দিন মৃধা।

এই হ’ত্যা মা’মলায় সংশ্লিষ্ট পু’লিশের ত’দন্তকারী দল জানিয়েছে, ঘ’টনার দিন সকালে মুঠোফোনে শারমিন আক্তার কাকলীকে ফোন দিয়ে অক্সফোর্ড একাডেমিতে দেখা করতে বলে তার পুরাতন প্রে’মিক সহপাঠী সাইফ উদ্দিন।

এটি স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্ডেন স্কুল যা ক’রোনা ভাই’রাসের কারনে বেশ কিছুদিন যাবত বন্ধ রয়েছে ফলে স্কুলটিতে কেউ প্রবেশ করেনা)।

অক্সফোর্ড একাডেমিতে আগে থেকেই হাজির ছিল কাকলীর নতুন প্রে’মিকও।(পুরাতন এবং নতুন- উভ’য় প্রে’মিকের পরিচিয় হওয়ার পরে তারা জানতে পারে যে কাকলি তাদের উভ’য়ের সাথেই প্রেম করছে। তারা এর প্র’তিশোধ নেয়ার সি’দ্ধান্ত নেয়।)

সূত্রটি আরো জানায়, গো’য়েন্দারা বিভিন্ন ত’থ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে সাইফ উদ্দিনকে গ্রে’প্তার করে এবং পরে সাইফের দেখিয়ে দেওয়া স্থান থেকে কাকলীর বিচ্ছিন্ন মাথা এবং হ’ত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ধারাল চাকু উ’দ্ধার করে পু’লিশ। তবে এই ঘ’টনায় জ’ড়িত পা’লিয়ে যাওয়া অপর কি’শোরকেও খুঁজছে পু’লিশ।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, মতলব উত্তরের পূর্ব ইসলামাবাদ গ্রামের প্রবাসী বজলু বেপারীর বড় মে’য়ে শারমিন আক্তার কাকলীর স’ঙ্গে প্রেমের সম্প’র্ক ছিল পাশের সুজাতপুর গ্রামের রাসেল আহমেদের ছেলে সাইফ উদ্দিনের।

এরই মাঝে গত কয়েক মাস আগে কাকলী সাইফ উদ্দিনকে বাদ দিয়ে নতুন করে প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে এলাকায় নতুন আসা রাজশাহীর আরেক কি’শোরের স’ঙ্গে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here