ক্রিকেট মাঠেই তাদের পরিচয়, ফোন কল, মেসেঞ্জারে চলতে থাকে প্রে’ম, অতঃপর ক্রিকেটার সানজিদা বিয়ে…

0
44

মাঠে তাদের পরিচয়। ফোন কল, মেসেঞ্জারে চলতে থাকে যোগাযোগ। বাড়তে থাকে ঘনিষ্ঠতা। ছয় বছর প্রে’মের পর অবশেষে শুভ পরিণয়।

বলছি বাংলাদেশ না’রী দলের ক্রিকেটার সানজিদা ইস’লাম ও রংপুর বিভাগীয় দলের ক্রিকেটার মীম মোসাদ্দেকের কথা। একই ভুবনের দুজন গাঁটছড়া বেধেছেন শুক্রবার। বসেছেন বিয়ের পিঁড়িতে।

২০১৪ সালে বিকেএসপি জীবন শেষে বাড়ি ফিরে রংপুর ক্রিকেট একাডেমিতে অনুশীলন শুরু করেন সানজিদা। সেখানেই নিয়মিত অনুশীলন করতেন মীম। পরিচয়টা তাদের ক্রিকেট মাঠেই। একজন আরেকজনকে ভালো’ভাবে বোঝার পর হয় মন দেয়া-নেয়া।

ক্রিকেটার সানজিদা
স’ম্পর্ককে বিয়ে পর্যন্ত টেনে নেয়া কঠিন হয়ে পড়েছিল। ক্রিকেটার মে’য়ে বউ হিসেবে কেমন হবে, সেটি নিয়ে সংশয় ছিল মীমের বাবার। তার আ’পত্তি বা’ধার সৃষ্টি করলেও বিশ্বা’স হা’রাননি তিনি। সানজিদাকে সামনাসামনি দেখে, কথা বলার পর বরফ গলে শ্বশুরের।

বিয়ের পরও ক্রিকেট খেলা চা’লিয়ে যেতে আ’পত্তি নেই কারোরই। চ্যানেল আই অনলাইনকে সানজিদা বলছিলেন, ‘আমা’র পরিবার ও মীমের পরিবার, সবাই চায় দেশের জন্য আমি ক্রিকেট খেলা চা’লিয়ে যাই।

আমা’র স্বা’মী বোঝে জাতীয় দলের একজন ক্রিকেটারের কতটা গুরুত্ব। সে সেই সম্মানটা সবসময়ই দেয়। সে নিজেই যেহেতু ক্রিকেটার, তার চেয়ে ভালো আর কে বুঝবে ব্যাপারটা।’

‘আমাদের প্রে’মের স’ম্পর্কে অনেক বা’ধা এসেছিল। সব জয় করে আম’রা এগিয়ে যেতে পেরেছি। সবাই দোয়া করবেন আমাদের জন্য। মীমের স’ঙ্গে আমা’র পরিচয় রংপুর ক্রিকেট একাডেমিতে। শুরুতে বন্ধুত্ব। ধীরে ধীরে আমাদের মাঝে স’ম্পর্ক গড়ে ওঠে।’

২৪ বছর ব’য়সী সানজিদা বাংলাদেশের টপঅর্ডার ব্যাটার। ওয়ানডে খেলেছেন ১৬টি, টি-টুয়েন্টি পঞ্চাশের অধিক (৫৪)। ২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশকে বিশ্বমঞ্চে প্রতিনিধিত্ব করছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here