খালেদা জিয়ার হাজার কোটি টাকার সম্পদের মালিক হচ্ছেন যারা!

0
135

বিএনপি’র রাজনীতিতে এখন প্রধান স’মস্যা হলো জিয়া পরিবারের অভ্যন্তরীণ কোন্দল। স’রকার বি’রোধী কোনো আন্দোলন নেই। স’রকারের পক্ষ থেকে কোন চা’প নেই বিএনপি’র ব্যাপারে। বরং বেগম খালেদা জিয়াকে দু’দফায় প্রায় এক বছর বিশেষ বিবেচনায় জা’মিন দিয়েছে স’রকার। বিএনপির নেতাদের বি’রুদ্ধে ধরপাকড় নেই। প্রায় সব নেতাদের বি’রুদ্ধে যে দু’র্নীতি, অ’গ্নিসংযোগ জ্বা’লাও পোড়াও এর মা’মলা আছে সেই মা’মলা গুলো থেমে গেছে।

তারপরেও বিএনপিতে অস্থিরতা চলছে, বিএনপি’র মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কথা কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে। আর অনুসন্ধান করে দেখা গেছে যে, এর পেছনে মূ’ল কারণ হল জিয়া পরিবারের অভ্যন্তরীণ কোন্দল। খালেদা জিয়া জে’ল থেকে বের হবার পরই তারেক জিয়া এবং খালেদা জিয়ার মধ্যে নানা রকম বি’রোধের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এই দলের মনোনয়ন কমিটি নিয়ে মা-ছেলের দ্ব’ন্দ্ব প্রতিদিনই প্রকাশ্য হচ্ছে।তবে বিএনপির একাধিক সূত্র বলছেন যে,

বেগম খালেদা জিয়া অনেক অ’সুস্থ এবং তিনি মুক্ত অবস্থায় তার যে, দেশে-বিদেশে হাজার কোটি টাকা সম্পদ আছে। সেই সম্পদগুলোর ব্যাপারে একটি ফয়সালা করতে চান। আর এ নিয়েই এখন বেগম জিয়ার পরিবারের সদস্যরা তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে পরেছেন।এই সম্পদের জন্যই তারা মরিয়া হয়ে উঠেছেন।উল্লেখ্য যে, বেগম খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক জিয়া অনেক বিত্তবান এবং তারও বিভিন্ন দেশে হাজার কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে।

তারপরও খালেদার সম্পদের দিকে নজর রয়েছে তারেক জিয়ার। জানা গেছে যে, বেগম খালেদা জিয়ার সৌদি আরব, আবুধাবি, ব্রুনাই, মালয়েশিয়া এবং সিঙ্গাপুর- এই দেশগুলোতে বিপুল পরিমাণ সম্পদ রয়েছে। সৌদি আরবে বেগম খালেদা জিয়ার দুইটি শপিং মলের শেয়ার রয়েছে, আভিজাত্য এপার্টমেন্ট রয়েছে তিনটি।এছাড়াও তার দুইটি দোকান আছে বলে সৌদি গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা গেছে। এছাড়াও সৌদি আরবে খালেদা জিয়ার নামে বাংলাদেশি টাকায় তিনটি পৃথক পৃথক এফডিয়ার রয়েছে,

যে তিনটি এফডিআরের মূ’ল্য ১৩০ কোটি টাকা। সৌদি আরব ছাড়াও সংযুক্ত আরব আমিরাতে বেগম খালেদা জিয়ার একটি শপিং মলে ৮টি দোকানের সন্ধান পাওয়া গেছে।তিনি সৌদি আরবে বুর্জ খলিফায় একটি এপার্টমেন্টের মালিক। এ ছাড়াও সৌদি আরবে তার আরও দুটি

এপার্টমেন্ট আছে বলে জানা গেছে। এছাড়া সৌদি ব্যাংকে খালেদা জিয়ার গচ্ছিত এফডিয়ারের পরিমান ৮৭ কোটি টাকা বলে জানা গেছে। এছাড়াও বেগম খালেদা জিয়া সম্পদ আছে ব্রুনাইয়ে। সেখানে বেগম খালেদা জিয়ার বাংলাদেশি টাকার ৮০ কোটি টাকা ব্যাংকে গচ্ছিত আছে বলে দায়িত্বশীল সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here