ফাঁ’সির রায়ের পর হাসতে হাসতে যা বললেন রিফাত ফরাজি

0
217

বরগুনায় রিফাত হ’ত্যা মা’মলায় ফাঁ’সির দ’ণ্ডপ্রা’প্ত আ’সামি মো. রাকিবুল হাসান ওরফে রিফাত ফরাজি রায়ের পর হাসতে হাসতে আ’দালত থেকে বেরিয়ে প্রিজনভ্যানে ওঠেন।

এ সময় তিনি বলেন, আমরা সব আল্লাহর ও’পর ছেড়ে দিলাম। অতীতে যা হয়েছে তা আল্লাহ করেছেন আর ভবি’ষ্যতে যা হবে সেটাও আল্লাহই করবেন।

বুধবার দুপুর ২টা ৫৫ মিনিটে আ’দালত থেকে আ’সামিদের কা’রাগারে নেয়ার সময় প্রিজনভ্যানে ওঠার মুহূর্তে এসব কথা বলেন রিফাত ফরাজি। তবে আশপাশের শব্দের কারণে তার বাকি বক্তব্য স্পষ্ট শোনা যায়নি।

এ সময় শুধু আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন ছাড়া বাকি সাজাপ্রা’প্তরা স্বাভাবিক ছিলেন।

বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হ’ত্যা মা’মলায় রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ছয়জনের ফাঁ’সির আদেশ দেন আ’দালত। একই মা’মলায় চারজনকে খালাস দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আ’দালত।

বুধবার দুপুর পৌনে ২টার দিকে এ মা’মলার রায় ঘোষণা করেন বরগুনার জে’লা ও দায়রা জজ আ’দালতের বিচারক মো. আছাদুজ্জামান।

ফাঁ’সির দ’ণ্ডপ্রা’প্তরা হলেন মো. রাকিবুল হাসান ওরফে রিফাত ফরাজী (২৩), আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজোয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২), মো. হাসান (১৯) ও আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯)।

এছাড়া এ মা’মলায় চার আ’সামিকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে। খালাসপ্রা’প্তরা হলেন- মো. মুসা (২২), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), মো. সাগর (১৯) ও কামরুল হাসান সায়মুন (২১)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here