এবার ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর বি’রুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিলেন যুবলীগ নেত্রী

0
129

ক্ষ’মতাসীন দলের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা অনেক সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে বিভিন্ন কর্মকান্ড নিয়ে কথা বলেন এবং অনেক ক্ষেত্রে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে থাকেন এমন ঘ’টনা ঘটেছে এবার চুয়াডাঙ্গার সদরে সেখানে জে’লা যুব ম’হিলা লীগ নেত্রী আফরোজা পারভিনকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে কুরুচিকর মন্তব্য এবং পোস্ট করেছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এতে তার সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন হতে হয়েছে এবং তার সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে এ কারণেই তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই ঘ’টনাটিকে কেন্দ্র করে ডিজিটাল লাইনে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মা’মলা দায়ের করেছেন

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মানহানিকর পোস্ট দেয়ার অ’ভিযোগে চুয়াডাঙ্গায় চার ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মা’মলা দা’য়ের করা হয়েছে। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মা’মলাটি দা’য়ের করেন জে’লা যুব ম’হিলা লীগ নেত্রী আফরোজা পারভীন।

মা’মলার আ’সামিরা হলো, চুয়াডাঙ্গা শহরের শান্তিপাড়ার শহিদ খানের ছেলে মানিক খান (২৬), কেদারগঞ্জের খবির শেখের ছেলে ও পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন (২৭), বাহাদুর পাড়ার আদম আলীর ছেলে রাকিবুল ইসলাম নিপ্পন (২৪) ও আরামপাড়ার কাশেমের ছেলে ফয়সাল খানসহ অ’জ্ঞাত ১০/১৫ জন।

মা’মলার এজাহারে আফরোজা পারভীন উল্লেখ করেন, গত ১৮ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগ কর্মী মানিক খান তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি থেকে জে’লা আওয়ামী যুব ম’হিলা লীগের আহ্বায়ক আফরোজা পারভীনকে নিয়ে মানহানিকর ত’থ্য পোস্ট করে। পরদিন ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন তাকে উদ্দেশ্য করে কুরুচিপূর্ণ পোস্ট শেয়ার করে। এসব পোস্টে রাকিবুল ইসলাম নিপ্পন ও ফয়সাল খানসহ ১০/১৫ জন বাজে মন্তব্য প্রদান করে। এতে আফরোজা পারভীনের সামাজিকভাবে হেয় ও সুনামক্ষুন্ন করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান জানান, লিখিত অ’ভিযোগ পেয়ে মা’মলা গ্রহণ করা হয়েছে। ত’দন্তের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এবার ছাত্রলীগ নেতাদের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা নিলেন যুবলীগ নেত্রী আফরোজা পারভীন। চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মানহানিকর পোস্ট দেওয়ার কারণে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তাদের বি’রুদ্ধে মা’মলা দায়ের করা হয়। চারজন নেতাসহ অ’জ্ঞাত আরও কয়েকজনের বি’রুদ্ধে এই মা’মলা অ’জ্ঞাত হিসেবে উল্লেখ করা হয়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here