কি হবে দেশে আ’টকে পড়া সৌদি প্রবাসীদের?

0
63

ক’রোনার সং’ক্র’মণ ঠে’কাতে লকডাউন জারির আগে দেশে আসা কয়েক লাখ প্রবাসী কর্মী আ’টকা পড়েছেন। অনেকের কাছে রিটার্ন টিকিট থাকলেও ক’রোনাভা’ইরাসেের কারণে যেতে পারেননি। এখন সেই টিকিট কনফার্ম করতে এসেছেন।

অনেকের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে-তারা কীভাবে যাবেন, তা নিয়েও উ’দ্বি’গ্ন। আর ভিসার মেয়াদ শেষ হবে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর। এ সময়ের মধ্যে কর্মস্থলে না ফিরতে পারলে তারা আর সৌদিতে যেতে পারবেন কী-না তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

এমন কর্মীর সংখ্যা প্রায় ৮০ হাজার। মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেই বি’ক্ষো’ভে নামেন প্রবাসীরা। কারওয়ানবাজার মোড়ে রাস্তা অ’বরোধ করে বি’ক্ষো’ভ করেন সৌদি আরব থেকে ছুটিতে এসে আ’টকেপড়া প্রবাসীরা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের মতিঝিল কার্যালয় অ’বরুদ্ধ করেন তারা। কয়েকশ প্রবাসী এই বি’ক্ষো’ভে অংশ নেন। প্রথমে তারা কারওয়ানবাজারে সৌদি এয়ারলাইনস এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের কার্যালয়ের সামনে বি’ক্ষো’ভ করেন।

পরে মতিঝিলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের কার্যালয় অ’বরুদ্ধ এবং পররাষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয় ঘেরাও করেন। দীর্ঘ তিন ঘণ্টা পর তারা অ’বরোধ তুলে নেন। এদিকে, বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে ক্ষু’ব্ধ ও হতাশ প্রবাসীরা সৌদি আরবে ফেরার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা

নিতে ও ফ্লাইটের দাবিতে প্রবাসীকল্যাণ ম’ন্ত্রণালয় ঘেরাও করেন। আর বিমান ও সৌদি এয়ারলাইনসের টিকিটের জন্য সৌদি প্রবাসীরা বুধবারও রাজপথে বি’ক্ষো’ভ করছেন। তার দুই এয়ারলাইনসের অফিসের সামনে নির্ঘুম রাত কা’টাচ্ছেন, তারপরও টিকিট মিলছে না।

সৌদি আরবে ফিরে যাওয়ার টিকিট না পেয়ে আজ সকালেও রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে সৌদি এয়ারলাইনসের কার্যালয়ের সামনে কয়েক হাজার প্রবাসী জমায়েত হয়ে বি’ক্ষো’ভ চা’লিয়ে যান। এ সময় টিকিটের দাবিতে তারা নানা স্লোগান দেন। তারা বলছেন, ১ অক্টোবরের মধ্যে আমরা যদি সৌদিতে ফিরতে না পারি; তবে আমাদের আকামা বাতিল হয়ে যাবে।

বি’ক্ষো’ভে অংশ নিতে কুমিল্লা থেকে আসা একজন প্রবাসী বলেন, স’রকারের জরুরি পদক্ষেপ না নিলে আমরা সৌদিতে ঢুকতে পারব না। আমাদের পরিবার বি’পদে পড়ে যাবে। আমরা বেকার হয়ে পড়ব।

প্রবাসীরা বলেন, বিভিন্ন মেয়াদে তাদের সবার রিটার্ন টিকিট কেনা আছে। এ সময়ের মধ্যে তারা যদি সৌদিতে ফিরে না যেতে পারেন, তা হলে যেন তিন মাসের মেয়াদ বাড়ানো হয়। সৌদি স’রকারের কাছে সেই আবেদন করতে স’রকারের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

এদিকে, ছুটিতে এসে দেশে আ’টকা পড়া কর্মীদের ভিসার মেয়াদ তিন মাস বাড়াতে সৌদি আরবকে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি পাঠিয়েছে বাংলাদেশ। তবে এ বি’ষয়ে এখনো সৌদি আরবের ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যায়নি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, ভিসার মেয়াদ তিন মাস বাড়াতে ইতিমধ্যে সৌদি স’রকারকে অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু দেশটির কাছ থেকে আশ্বাস করার মতো কোনো সদুত্তর পাওয়া যায়নি। উল্টো সৌদি কর্তৃপক্ষ দেশটিতে থাকা অ’বৈধ কর্মীদের ফিরিয়ে নিতে বলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here