স’ন্তান ধারণের জন্য কতবার সহ’বাস করা প্রয়োজন?

0
62

আপনি যদি একটি স’ন্তান গ্রহণের পরিকল্পনা করেন, তবে সেক্ষেত্রে শা’রীরিক ও মা’নসিক দিক থেকেও আপনাকে প্রস্তুত হতে হবে।

সবার প্রথমেই আপনাকে যা করতে হবে তা হল আপনার গ’র্ভধারণের সবচেয়ে ভালো সম্ভাবনা নিশ্চিত করার জন্য আপনাকে সঠিক সময়ে স’ঙ্গ’ম করতে হবে।পরিসংখ্যান ইঙ্গিত দেয় যে,গড়ে দম্পতিদের গ’র্ভাবস্থা পাওয়ার পূর্বে কমপক্ষে 78 বার স’ঙ্গ’ম করা প্রয়োজন হয়। যা মো’টামুটি ছয় মাসের মধ্যে আসে।

গ’র্ভধারণ করার জন্য কি প্রতিদিন স’ঙ্গ’ম করা প্রয়োজন ?
দ্রু’ত গ’র্ভধারণের উৎসাহে আপনি হয়ত দৈনিক ভিত্তিতে স’ঙ্গ’মে আ’গ্রহী হতে পারেন। এবং এটি প্রারম্ভিক ভাবে খুব মজাদার ও আ’নন্দের হতে পারে প্রথম বা দ্বিতীয় মাসের জন্য।কিন্তু আপনি যদি সেই সময় গ’র্ভধারণ করতে না চান তবে সেক্ষেত্রে প্রতিদিন স’ঙ্গ’ম একঘেয়ে একটি কৌতুক হয়ে উঠতে পারে

।আপনার স’ঙ্গ’ম করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবধান নির্ভর করবে কিছু বি’ষয়ের উপর,যেমন আপনি যে পদ্ধতিটি পছন্দ করছেন, এবং আপনার প্রজননে বিদ্যমান কোনোরকম স’মস্যা—এগু’লির উপর।

যদি খা’রাপ মানের ও খুব কম পরিমাণের শুক্রাণুর সাথে প্রতিদিন স’ঙ্গ’ম করা হয় তবে তা অনেক সময় জালিয়াতির প্রমাণ দিতে পারে।একজন অভিজ্ঞ ডাক্তারবাবুর পরামর্শ আপনাকে সাহায্য করবে আপনার ও আপনার স’ঙ্গীর জন্য কোনটি সেরা সেই সি’দ্ধান্তটি নিতে।

গ’র্ভধারণের জন্য কত ঘনঘন স’ঙ্গ’ম করা প্রয়োজন?
আপনার দ্রু’ত গ’র্ভধারণের সম্ভাবনাকে নিখুঁত ভাবে সম্পন্ন করতে নিশ্চিতভাবে আপনার প্রায়ই ঘনঘন স’ঙ্গ’ম করা প্রয়োজন। যদি আপনার বা আপনার স’ঙ্গীর প্রজননের কোনো রকম স’মস্যা না থাকে, তবে প্রতিদিন স’ঙ্গ’ম করা খুব ভালো একটা ধারণা হতে পারে।

কিন্তু কিছু সময় পর সেটি মজার তুলনায় ক্লান্তিকর একটি কাজ হয়ে উঠতে পারে।তাই রোমান্স বজায় রাখতে প্রতিবার একে অপরের প্রতি নতুন কিছু অনুভূতি জাগিয়ে তুলতে চেষ্টা করুন। প্রজননের উর্বর সময়ে প্রায়ই ঘনঘন স’ঙ্গ’ম

ম’হিলাদের চ’ক্রের এমন একটি সময়কাল আসে যখন তাদের প্রজননের উর্বরতা সবচেয়ে বেশী হয়।গ’র্ভধারণের জন্য এই উর্বর সময়কালটিকেই সঠিক ভাবে চিহ্নিত করে সেই সময়ে প্রতিদিন স’ঙ্গ’ম করলে গ’র্ভধারণের সম্ভাবনা সর্বাধিক হয়।

আপনার মাসিক চ’ক্রকে ট্র্যাক করে এবং ওভু’লেশনের সম্ভাব্য দিনগু’লিকে চিহ্নিতকরণ স’ন্তানধারণের ক্ষেত্রে সাহায্যকারী হয়ে উঠতে পারে।সাধারণত, ওভু’লেশনের ঠিক 5 দিন আগে প্রজননের সবচেয়ে উর্বর সময়টি থাকে, যখন স’ন্তানধারণের সম্ভাবনা থাকে 25%, এবং এই সম্ভাবনার উন্মুক্ত জানলাটি ফিরে আসে প্রতি মাসে।

এক্ষেত্রে অনেক গু’লি উপায় আছে যেগু’লি ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি নির্ধারণ করতে পারেন আপনার প্রজননের সবচেয়ে উর্বর সময়টি।আপনার ব্যাসালবডি টেম্পারেচারের চার্ট ,আপনার সার্ভিক্যাল মিউকাসের পর্যবেক্ষণ এবং ওভু’লেশন প্রেডিক্টর কিটের ব্যবহার আপনাকে সাহায্য করে প্রতিমাসে আপনার প্রজননের সবচেয়ে উর্বর সময়টিকে চিহ্নিত করতে।প্রজনন পর্যবেক্ষণ এবং ক্যালেন্ডার হল কিছু অন্য পদ্ধতি যেগু’লিও আপনি ব্যবহার করতে পারেন।প্রজননের উর্বর সময়ে প্রায়ই ঘনঘন স’ঙ্গ’মযাইহোক, আপনার প্রজননের উর্বরতা এবং স’ঙ্গ’মের সময়সূচি নির্ধারণের ট্র‍্যাকিং সমস্তটাই হতে পারে আপনার মা’নসিক চা’পের স’ঙ্গে স’ঙ্গতীপূর্ণ, যা আপনার উপর একটি প্রতিকূল প্রভাব ফেলতে পারে। এক্ষেত্রে সঠিক ভারসাম্য বজায় রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রজননের উর্বতার ট্র‍্যাকিং বেশী না করাই উচিৎ।

প্রজননের অনুর্বর সময়ে স’ঙ্গ’ম
যখন একথা সত্য যে আপনার প্রজননের উর্বর সময়ে স’ঙ্গ’ম আপনার গ’র্ভধারণের সম্ভাবনাকে বহু মাত্রায় বাড়িয়ে তোলে, কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে,আপনার প্রজননের অনুর্বর দিনগু’লিতে আপনি স্বাভাবিকভাবে স’ঙ্গ’ম করা বন্ধ করে দেবেন।আপনি যদি চিন্তা করেন যে আপনার প্রজননের অনুর্বর দিনগু’লিতে স’ঙ্গ’ম করা বা না করাটা কোনো ব্যাপার নয়, তবে সত্যি সেটি পুনরায় চিন্তা করারই সময়।যদিও এটি স’ন্তানধারণে সরাসরি প্রভাব ফে’লে না,গবে’ষণা নির্দেশ করে যে,স’ঙ্গ’ম নানা ভাবে ম’হিলাদের রো’গ প্রতিরোধ ব্যবস্থায় পরিবর্তন আনতে পারে যা গ’র্ভধারণের সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে তোলে।এক্ষেত্রে একটি অপ্রমাণিত তত্ত্বও রয়েছে যে ,ওভু’লেশনের পরে ক্রমাগত স’ঙ্গ’ম গ’র্ভাবস্থা বজায় রাখতে সাহায্য করে যেহেতু বী’র্য উন্নয়নশীল ভ্রূণের জন্য উপকারী।

গ’র্ভধারণ করতে কখন স’ঙ্গ’ম সীমিত করা হয়
কিছু ক্ষেত্রে আপনার ডাক্তারবাবু আপনাকে সুপারিশ করতে পারেন যে গ’র্ভধারণের চেষ্টা করার সময় আপনার স’ঙ্গ’ম করার পরিমাণ কমিয়ে দেওয়ার জন্য।এটি হতে পারে যখন পুরু’ষ বা ম’হিলা উভ’য়ের মধ্যে কারুর প্রজননগত স’মস্যা থাকে।যদি পুরু’ষের শুক্রাণুর পরিমাণ কম থাকে, তখন ডাক্তারবাবু প্রতিদিনের পরিবর্তে প্রতি বিকল্প দিনে স’ঙ্গ’ম করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।অনুরূপভাবে যদি ম’হিলাটি প্রজননগত স’মস্যায় ভোগেন এবং সেটির চিকিৎসাধীন হয়ে থাকেন, তখন সেক্ষেত্রে ডাক্তারবাবু দৈনন্দিন নিয়মিত স’ঙ্গ’ম থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।এমনকি আপনার প্রজননের সবচেয়ে উর্বর জানলায় দাঁড়িয়েও,আপনার প্রতি বিকল্প দিনে স’ঙ্গ’ম করা উচিত আপনার গ’র্ভধারণের সুযোগের সম্ভাবনা বাড়ানোর জন্য, বিশেষ করে যদি সেক্ষেত্রে শুক্রাণুর পরিমাণে ঘাটতি থেকে থাকে।

একটি শি’শু জ’ন্ম’দানের উ’ত্তেজনাপূর্ন পরিকল্পনা এবং মজা শুরু করা বন্ধ হয়ে যায় নানান মা’নসিক চা’পের কারণে এবং যা আপনার স’ঙ্গীর সাথে আপনার সম্প’র্কের মধ্যে একটি খা’রাপ প্রভাব ফেলতে পারে। যদি আপনার প্রজননের উর্বর সময়ে দুমাসের বেশী সময় ধরে স’ঙ্গ’ম করেন তা আপনার গ’র্ভাবস্থার সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে তোলে উল্লেখযোগ্য ভাবে।এই একই সময়ে এটিও সত্য যে, প্রতি মাসে প্রায়ই স’ঙ্গ’মও অবশেষে গ’র্ভধারণ ঘটাবে যখন সেখানে আর অন্য কোনও স’মস্যা থাকে না। সুতরাং যেটা আপনাদের দুজনের জন্য সব থেকে ভাল সেটা করুন যদি আপনি দেখেন যে এক বছর ধরে নিয়মিত চেষ্টা করেও গ’র্ভধারণের ক্ষেত্রে স’মস্যা দেখা দিচ্ছে তবে কোনও রকম দ্বিধা ছাড়াই ডাক্তারি চিকিৎসা করান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here