ব্যবসায়ীকে মা’রধর করে ভি’ডিও ফে’সবুকে দিলেন ছাত্রলী’গ নে’তা, গ্রে’ফতার ৩

0
78

নওগাঁর মহাদেবপুরে ব্যবসায়ীকে মা’রপিট ও চাঁ’দাবাজির অ’ভিযোগে করা মা’মলায় অবশেষে গ্রে’ফতার হয়েছেন উপজে’লা ছাত্রলী’গের সদ্য বহিষ্কৃত সভাপতি রাজু আহমেদসহ তিনজন। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে রাজধানী ঢাকার হাসকোনা এলাকায় অ’ভিযান চালিয়ে তাদের গ্রে’ফতার করে পুলি’শ। গ্রে’ফতার ছাত্রলী’গের ওই তিন নে’তাকর্মী হলেন- মহাদেবপুর উপজে’লা ছাত্রলী’গের সভাপ’তি রাজু আহমেদ (৩০), ছাত্রলী’গ নে’তা নয়ন (২৫) ও ছাত্রলী’গক’র্মী ইমরান মহুরী (২২)।

মহাদবেপুর থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, গত ৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় মহাদেবপুর উপজে’লা সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আরএফএল ভিগো শোরুমের স্বত্বাধি’কারী সোহেল রানার দো’কানে ঢুকে তাকে মা’রধর করে তুলে নিয়ে যায় উপজে’লা ছাত্রলী’গের সভাপতি রাজু আহমেদ ও তার স’ঙ্গীরা।

এ ঘ’টনায় গত ৬ সেপ্টেম্বর রাজু, নয়নসহ অ’জ্ঞাত আরও ৬-৭ জনের বি’রুদ্ধে থানায় চাঁ’দাবাজি ও মা’রধরের মা’মলা করেন ওই ব্যবসা’য়ী। মা’মলার পর থেকে এজহারভুক্ত আ’সামিরা প’লাতক ছিলেন। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে রাজু আহমেদ, নয়ন ও ইমরান মহুরীকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গ্রে’ফতার ওই তিনজনকে বুধবার সকালে আ’দালত পাঠানো হয়েছে। উল্লেখ্য, গত রোববার ব্যবসায়ী সোহেলের দোকানের সিসি ক্যা’মেরায় তাকে মা’রপিটের ধা’রণ করা ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মা’ধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। মুহূর্তেই ওই ভিডিও ভাইরাল হয়ে পড়ে। ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর গত সোমবার মহাদেবপুর উপজে’লা ছাত্রলী’গের সভাপতি রাজু আহমেদকে সংগঠন থেকে সা’ময়িক ব’হিষ্কার করে জে’লা ছাত্রলী’গ।

রাজুর বি’রুদ্ধে মা’মলা হওয়ার পর সংগঠন থেকে গত ১৩ সেপ্টেম্বর তাকে সংগঠন থেকে সাময়িক ব’হিষ্কার করা হয় এবং স্থায়ী ব’হিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় ছাত্রলী’গের কাছে সু’পারিশ পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here