প্রিয় পুরু’ষের কাছে মনে মনে মে’য়েরা যে ১০ টি বি’ষয় আশা করেন

0
70

সেই আদিকাল থেকেই চলে আ’সছে না’রী ও পুরু’ষের অনবদ্য প্রে’ম। হাজার হাজার বছরে বদলেছে স’স্পর্কের নানা দিক, এসেছে নানা পরিবর্তন। কিন্তু প’রস্পরের প্রতি সেই আদি ও অকৃত্রিম আবেদনটা কোনো ভাবেই কমেনি। না’রী ও পুরু’ষ প’রস্পরকে ভালোবাসবে আর সেটাই ধ্রুব সত্য। আচ্ছা, কী’ চান একজন না’রী ভালোবাসার স’স্পর্ক হতে?

কিংবা ভালোবাসার পুরু’ষটির কাছ থেকে কোন ব্যাপারগুলো সবচাইতে বেশি আশা করেন একজন না’রী কিন্তু মুখে বলতে পারেন না? আমাদের আজকের ফিচার না’রীর সেই চাওয়াগুলো নিয়েই।

খুব সহ’জ কিছু চাওয়া আছে, যেগুলো পুরু’ষের কাছে আহাম’রি মনে না হলেও না’রীদের কাছে আ’সলে বেশ গু’রুত্ব পূর্ণ। না’রীরা যে ১০টি বি’ষয় মনে মনে আশা করে থাকেন প্রিয় পুরু’ষের কাছ থেকে

১. দ্রু’ত প্রতিষ্ঠিত হওয়া : না’রীরা পুরু’ষের কাছে আরেকটি যে বি’ষয় আশা করে তা হল অনেক তাড়াতাড়ি বিখ্যাত হওয়া। অর্থাৎ কোনো পুরু’ষ যদি খুব তাড়াতাড়ি ক্যারিয়ার গুছিয়ে মো’টামুটি ভালো একটা অব’স্থানে যেতে পারে তাহলে না’রীরা অনেক বেশি খুশি হয় এবং তারা এটিই চায় পছন্দের পুরু’ষের কাছ থেকে।

২. উপহার : না’রীরা পুরু’ষদের কাছ থেকে প্রথম যে বি’ষয়টি আশা করে সেটি হল প্রয়োজনে-অ’প্রয়োজনে উপহার দেয়া। না’রীদের যত রাগ অ’ভিমান সবকিছু ধূলোয় মিলিয়ে দিতে পারে একমাত্র এই উপহার।

সেটি যেকোনো উপহার হতে পারে। হতে পারে ফুল, হতে পারে পুতুল, চকোলেট, কার্ড বা আরও অন্য কিছু। না’রীরা এই ধ’রনের সারপ্রাইজ পেতে বেশ ভালোবাসেন। নিজেকে বিশেষ মনে করেন, ভাবেন যে পুরু’ষটি টার কথা মনে রেখেছে।

৩. আক’র্ষণীয় সৌজন্যতা : প্রত্যেকটি না’রী পুরু’ষদের কাছ থেকে এ আক’র্ষণীয় সৌজন্যতা আশা করে। তারা চায় পুরু’ষরা যেন বোঝে সৌজন্যতাবোধ কী’। প্রে’মের ক্ষেত্রে তো বটেই, অন্যান্য সকল সামাজিক স’স্পর্কের ক্ষেত্রেও না’রীরা এই সৌজন্যটা আশা করে প্রিয় পুরু’ষের কাছ হতে।

৪. তারিখ যেন ভু’লে না যায় : না’রীরা অনেক বেশিই তারিখ সচে’তন। যেকোনো তারিখের কথা তাদের বেশ মনে থাকেন। তাই না’রীরা পুরু’ষের কাছে আশা করেন যেন যেকোনো গু’রুত্ব পূর্ণ তারিখ যেমন জ’ন্ম’দিন, ডেটিং, বিশেষ দিনের তারিখ মনে রাখেন এবং তাকে শুভেচ্ছা জা’নান।

৫. শোনার ক্ষ’মতা : প্রতিটি না’রীই একজন পুরু’ষের কাছে আশা করে যে তার কথাগুলো যেন শোনে, মূ’ল্যায়ন করে। অনেক পুরু’ষ আছেন যারা না’রীদের কথার কোনো দামই দেন না। কিন্তু না’রীরা চায় যে তারা যা বলেন তা যেন পুরু’ষেরা মনোযোগ দিয়ে শোনেন।

৬. মেকআপের যথেষ্ট সময় দেয়া : না’রীরা সাজতে অনেক পছন্দ করেন। তাই যেকোনো ধ’রনের পার্টিতে তাদের সাজগোজ ক’রতে একটু বেশি সময় লে’গেই যায়। তাই না’রীরা পুরু’ষদের কাছে আশা করেন তারা যেন পোশাক পরার জন্য এবং সাজগোজে’র জন্য যথেষ্ট সময় দেন, বির’ক্ত যেন না হয়।

৭. অ’পেক্ষা করা : অনেক পুরু’ষই আছেন যারা একটুতেই অধৈ’র্য হয়ে প’ড়েন। কোনোমতেই তারা অ’পেক্ষা ক’রতে পছন্দ করেন না। মে’য়েদের এমনিতেই কোথাও যেতে দেরী হয়ে থাকে। আর সেটি যদি ডেটিংয়ে হয় তাহলে আরও একটু বেশিই যেন হয়ে থাকে। কিন্তু এক্ষেত্রে না’রীরা চায় যে পুরু’ষরা যেন অ’পেক্ষা করার মনমা’নসিকতা রাখে। দেরী হলেও তাদের সাথে যেন খা’রাপ ব্যবহার না করেন বা মনোমালিন্য না করেন।

৮. ডিনার করানো : খেতে সবারই অনেক ভালো লাগে। না’রীরা ডিনার অনেক পছন্দ করেন কিন্তু ডিনারের রান্না বেশ ঝুট ঝামেলাই মনে করেন। তারা পুরু’ষদের কাছে আশা করেন যে রাতের খাবারটি যেন তিনি তৈরি করুন এবং তাকে খাবারে আমন্ত্রণ জা’নান।

৯. অন্য না’রীতে আসক্ত না হওয়া : না’রীরা পুরু’ষদের কাছে সবচেয়ে বেশি যে বি’ষয়টি চান সেটি হল অন্য কোনো না’রীতে তারা যেন আসক্ত হয়ে না প’ড়েন। একজন পুরু’ষ খুব স্বা’ভাবিক নিয়মে অন্য না’রীর প্রতি আসক্ত হয়ে প’ড়েন। ফলশ্রুতিতে স’স্পর্কে বি’চ্ছেদ। এজন্য এই বি’ষয়টি যেন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে চান তারা এবং পুরু’ষদের কাছে এটি থেকে বিরত থাকা আশা করেন।

১০. খেলার চেয়ে ভালোবাসাকে গু’রুত্ব : পুরু’ষেরা খেলা অনেক পছন্দ করেন। মাঝে মাঝে খেলার জন্য স্ত্রী’র সাথে ঝ’গড়াও করেন। এ কারণে না’রীরা চান যে খেলাকে যেমন তারা অনেক বেশি ভালোবাসেন তার চেয়েও অনেক বেশি সম্মান করেন তাদের মধ্যকার স’স্পর্ককে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here