প’রকীয়ার টানে স্ত্রী-স’ন্তানদের নি’র্যাতন করেন শিক্ষক

0
53

যশোরের চৌগাছা উপজে’লায় প’রকীয়া প্রেমে আসক্তি, স্ত্রী-স’ন্তানদের ভরণ-পোষণ না দেওয়া, তাদের শা’রীরিকভাবে নি’র্যাতন এবং বাড়িতে তালাবদ্ধ করে রাখার অভিযোগ উঠেছে সেখানকার এক সহকারী শিক্ষকের বি’রুদ্ধে। এ ঘ’টনায় শিক্ষকের স্ত্রী যশোর জে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ওই শিক্ষকের নাম আসলাম উদ্দিন। গত ২৯ জুলাই তার বি’রুদ্ধে পাওয়া অভিযোগ ত’দন্ত করে সরেজমিনে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য চৌগাছা উপজে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন জে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা।

গতকাল বুধবার আসলাম উদ্দিনকে ডেকে নেন উপজে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান। আজ বৃহস্পতিবার তিনি জানান, আসলাম উদ্দিনের বি’রুদ্ধে তার স্ত্রী জে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে ত’দন্ত করতে আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ডিপিও মহোদয় সেটি এক সপ্তাহের মধ্যে ত’দন্তকরে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। সে কারণে আসলাম উদ্দিনকে অফিসে ডাকা হয়। ত’দন্ত চলছে।

অফিসে ডেকে আসলাম উদ্দিনকে কি কি জিজ্ঞেস করা হয়েছে জানতে চাইলে কিছু বলেননি এই উপজে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা।

কী লেখা হয়েছে ২৯ জুলাইয়ের অভিযোগে

আসলাম উদ্দিনের স্ত্রী তার অভিযোগে লিখেছেন- ৩০ বছর আগে আমাদের বিয়ে হয়। আমাদের দুটি স’ন্তান আছে। আমাদের মে’য়ে (নাম উল্লেখ করে) এমএ পাস করেছে। এখনো বিয়ে হয়নি। ছেলে (নাম উল্লেখ করে) নবম শ্রেণির ছাত্র। আমার স্বা’মী দীর্ঘদিন যাবত প’রকীয়া প্রেমে আসক্ত। বিগত ৪-৫ বছর যাবত তিনি আমাদের উপর নি’র্যাতন করে আসছেন। প্রায়ই আমাকে শা’রীরিকভাবে নি’র্যাতন করে আ’হত করে। আমি চিকিৎসকরেও শরণাপন্ন হয়েছি। যার প্রমাণ আমার দুই স’ন্তান দেবে।

ওই না’রী আরও লিখেছেন- শত অ’ত্যাচার নি’র্যাতন করলেও স’ন্তানদের মুখের দিকে তাকিয়ে আমি স্বা’মীর সংসারে আছি। বিগত ৪ বছর যাবত আমার স্বা’মী আমাকে ও আমার স’ন্তানকে কোনো ভরণ-পোষন দেয় না। আমাকে ও তাদের নি’র্যাতন করে। তাই আমার বাবা মায়ের সহযোগীতায় স’ন্তানদের নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছি। আমার স্বা’মী যখন তখন ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে। আমি স’ন্তানসহ স্বা’মীর বাড়িতে মানবেতর জীবনযাপন করিতেছি। তার অ’নৈতিক কাজের প্র’তিবাদ করেও তাকে ফেরাতে পারিনি। গত জানুয়ারি মাস থেকে তার অ’ত্যাচারের মাত্রা বৃ’দ্ধি পাওয়ায় আমি ও আমার স’ন্তান সহ্যসীমা অতিক্রম করায় মানবিক কারণে আমি আপনার শরণাপন্ন হয়েছি।

শিক্ষক আসলাম উদ্দিনের ব্যবহৃত দুটি মোবাইল নম্বরে অভিযোগ সম্প’র্কে জানতে কল করা হয়। কিন্তু তিনি রিসিভ করেননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here