যে তিন দিন আলাদা থাকতে হবে স’ন্তান নিতে চাইলে!

0
103

প্রাচীন ভারতে স’ন্তান জ’ন্মকে ঘিরে আবর্তিত হত বেশ কিছু সংস্কার। তবে এদের এক কথায় ‘কুসংস্কার’ বলে উড়িয়ে দেওয়াও যায়নি। এই সংস্কারগু’লি সাধারণত ‘গ’র্ভসংস্কার’ নামে পরিচিত ছিল।

গ’র্ভদশা থেকেই জ্যোতিষ শাস্ত্রবিদরা জাতকের ভবি’ষ্যৎ সম্প’র্কে গণনা শুরু করতেন। অনেকে আবার এমন মতও পোষণ করতেন যে, গ’র্ভদশারও আগে স’ন্তান সম্প’র্কে যখন দম্পতিরা ভাবনা শুরু করেন, সেই দিন থেকেই সেই স’ন্তানের ভাগ্য নির্ধারণ করা সম্ভব।

বি’ষয়টা অনেক র’হস্যময়। কিন্তু গ’র্ভসংস্কার অনুযায়ী, যে কোন দিনে গ’র্ভধারণ বি’পদ ডেকে আনতে পারে। এই সংস্কারের প্রবক্তারা শাস্ত্রেই (বিস্তর শাস্ত্রে এর উল্লেখ রয়েছে। রয়েছে বাৎস্যায়ন-পূর্ববর্তী কামশাস্ত্রকারদের অনেকের রচনাতেও) জানিয়েছেন, সপ্তাহের তিনটি দিন স’ন্তানধারণের অভিপ্রায়ে মি’লিত না-হওয়াই ভাল।

তাদের মতে—
• মঙ্গলবার স’ন্তানধারণের উদ্দেশ্যে মি’লিত হলে স’ন্তানের উপরে মঙ্গলের প্রভাব পড়বে। ভবি’ষ্যতে সেই স’ন্তানের নিষ্ঠুর ও হিংস্র মনোভাবাপন্ন হয়ে ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে।

• শনিবার স’ন্তান-কামনায় মি’লিত হলে শনির প্রকো’পে স’ন্তানের মধ্যে নেতিবাচক প্রবণতা দেখা দিতে পারে। স’ন্তানের অ’ঙ্গহানিও ঘটতে পারে।

• রবিবার দিনটিকে অনেক শাস্ত্রই কোন কিছু আরম্ভের ব্যাপারে এড়িয়ে চলতে বলে। এদিন স’ন্তান-কামনায় কেউ যদি মি’লিত হন, তবে তার স’ন্তানের উপরে রবি বা সূর্যের প্রভাব থাকবে বিপুল পরিমাণে। ফলে তারা ভবি’ষ্যতে প্রবল ক্রোধী হয়ে উঠতে পার। এবং তাদের হৃদযন্ত্র-ঘটিত সমস্যা দেখা দিতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here