নিজের বাবাকেও প্রকাশ্যে পে’টাতেন শাহেদ

0
674

জাতীয়ঃ ক’রোনার নমুনা পরীক্ষা নিয়ে ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার মা’মলায় গ্রে’প্তার রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমের বি’রুদ্ধে উঠে আসছে একের পর এক প্র’তারণার অ’ভিযোগ।

এবার নিজের বাবাকেও পে’টানোর অ’ভিযোগ এসেছে তার বি’রুদ্ধে। সাহেদের একজন সাবেক দে’হরক্ষী সমকালকে জানান, ২০১১ সালে সাহেদের বাবা ছেলের একান্ত সহকারীকে (পিএস) বিয়ে করেন।

সাহেদের মা সাফিয়া করিম আগেই মা’রা যান। সাবেক ওই দে’হরক্ষী বলেন বৃ’দ্ধ ব’য়সে সাহেদের বাবা আশ্রয় খুঁজছিলেন। কারণ তাকে দেখভালের তেমন কেউ ছিল না। তবে পিএসকে বিয়ে করায় নিজের বাবাকে উত্তরার অফিসে প্রকাশ্যে বেল্ট দিয়ে বেদম মা’রধর করেন সাহেদ।

এটা দেখে রিজেন্টের অনেক কর্মী বিস্মিত হয়ে যান। পরে সাহেদের বাবা তার দ্বিতীয় স্ত্রী’কে নিয়ে মোহাম্ম’দপুরের বাসায় থাকতেন। দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে তার একটি স’ন্তান রয়েছে।

সাহেদের অ’পকর্মের ত’থ্য জানতে র‌্যা’ব যে হটলাইন চালু করেছে সেখানে মঙ্গলবার পর্যন্ত ১৫০টি অ’ভিযোগ জমা পড়েছে। তার মধ্যে ১৩০টি অ’ভিযোগ এসেছে টেলিফোনে। আর বাকি ২০টি ই-মেইলে। এ দিকে রিজেন্ট হাসপাতালে অ’ভিযানের পর ১৭ জনকে আ’সামি করে দা’য়ের করা মা’মলার ত’দন্তের দায়িত্ব পেয়েছে র‌্যা’ব।

র‌্যা’বের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ সমকালকে বলেন, সাহেদের বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ পাওয়ার পর ভু’ক্তভোগীদের আইনি পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

গত ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালে অ’ভিযানের পর গা-ঢাকা দেওয়া সাহেদকে গত ১৫ জুলাই সাতক্ষীরার সীমান্ত এলাকা থেকে একটি অ’স্ত্রসহ গ্রে’প্তার করে র‌্যা’ব। র‌্যা’ব কর্মকর্তারা জানান, ধরা পড়ার মুহূর্তে সাহেদ নিজেকে একজন গণমান্য ব্যক্তি বলে দাবি করেছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here