ইতিহাসের আরেকটি পাতা ঝরে পড়ল : ডা. জাফরুল্লাহ

0
1171

দেশের স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠক সাবেক মন্ত্রী শাহজাহান সিরাজের তৃতীয় নামাজে জানাজায় অংশ নিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সদস্য ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী।তিনি বলেছেন, ‘ইতিহাসের আরেকটি পাতা ঝরে পড়ল।’বুধবার (১৫ জুলাই) এশার নামাজের পর রাজধানীর গুলশান সোসাইটি মসজিদে শাহজাহান সিরাজের তৃতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজা শেষে ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘শাহজাহান সিরাজের মৃ’ত্যুতে ইতিহাসের আরেকটি পাতা ঝড়ে পড়ল। জাতির দুর্ভাগ্য নতুন প্রজ’ন্মকে এ ইতিহাস জানানো হয়নি।’তিনি বলেন, ‘আমি এ জন্যেই তাকে সালাম জানাতে এসেছি। ওই সময় দু’জন তরুণ একজন আ স ম আবদুর রব আরেকজন শাহজাহান সিরাজ।

এরাই তখন দেশের স্বাধীনতার ঝান্ডা তুলে ধরেছেন।’শাহজাহান সিরাজের তৃতীয় জানাজায় বিএনপি নেতা প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন, তাবিথ আউয়াল, আইনজীবী নেতা অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম, বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান প্রমুখ অংশ নেন।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে (সাবেক অ্যাপোলো হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন মহান স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠক, বিএনপি নেতা ও সাবেক মন্ত্রী শাহজাহান সিরাজ। মৃ’ত্যুকালে তার ব’য়স হয়েছিল ৭৭ বছর।আরও পড়ুনঃ উজানের ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে দেশে ভ’য়াবহ বন্যা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এ অবস্থায় ক’রোনা মো’কাবিলার মতো কথামালা নয়, বন্যা মো’কাবিলায় দেশবাসী স’রকারের কার্যকর পদক্ষেপ দেখতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাস’চিব এম.

গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।বুধবার (১৫ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন ন্যাপের দুই শীর্ষ নেতা।তারা বলেন, বিরাজমান বন্যা পরিস্থিতির অবনতির আ’শঙ্কা আরও বৃ’দ্ধি পাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে স’রকারের সংশ্লিষ্টদের কর্তব্য হলো সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে দুর্ভোগ মো’কাবিলায় যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ ও তার সুষ্ঠু বাস্তবায়ন নিশ্চিত করা। বলার অপেক্ষা রাখে না, নতুন করে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ার অর্থ হলো মানুষের দুর্ভোগ বৃ’দ্ধি পাওয়া।ন্যাপের এই দুই শীর্ষ নেতা বলেন, একদিকে ক’রোনাভা’ইরাসেের মধ্যে মানুষ চ’রম বিপাকে পড়েছে।

নানা ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মানাসহ সচেতন থাকার বি’ষয়টি বারবার বলা হচ্ছে। আবার এর মধ্যে যদি মানুষ হঠাৎ এই বন্যা পরিস্থিতিতে পড়ে তবে তা কতটা আ’শঙ্কাজনক, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। অব্যাহত বন্যায় ডুবে গেছে উঠতি ফসল। বাদাম ও ভুট্টাসহ নানান জাতের সবজি। এসব এলাকায় শুকনো খাবার ও শি’শু খাদ্যের তীব্র সং’কট দেখা দিতে পারে। এই অবস্থায় সার্বিক পরিস্থিতি মো’কাবিলায় সর্বাত্মক উদ্যোগ জারি রাখার বিকল্প নেই।তারা আরও বলেন, যখন বন্যা পরিস্থিতির অবনতিতে মানুষের দুর্ভোগ ও সার্বিক চিত্র আমলে নিতে হবে।

ক’রোনা মো’কাবিলার মতো কথামালা আর দেশবাসী শুনতে চায় না। তারা চায় বাঁচতে, সুস্থ থাকতে। সৃষ্ট পরিস্থিতি মো’কাবিলায় স’রকার সকল ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করুক ও তার সুষ্ঠু বাস্তবায়ন নিশ্চিত হোক এমটাই প্রত্যাশা দেশবাসীর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here