কাজের ম’হিলার স’ঙ্গে স্বা’মীর শারী’রিক সম্প’র্ক, না’রী আইনজীবীর আ’ত্মহ’ত্যা !

0
116

নওগাঁর বদলগাছীতে গ্রাম পু’লিশের দ্বারা ধ’র্ষণের শি’কার হয়ে অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে এক স্কুলছাত্রী। ঘ’টনার পর তার গ’র্ভের স’ন্তান ন’ষ্ট করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে ওই স্কুলছাত্রী।

অ’ভিযুক্ত গ্রাম পু’লিশ বাবুল হোসেন ফেলু উপজে’লার পাহাড়পুর ইউনিয়নে দায়িত্বরত এবং একই ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামের বাসিন্দা। আর ভু’ক্তভোগী স্থানীয় একটি মাদরাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী। গ্রাম পু’লিশ বাবুল তার প্রতিবেশী সম্প’র্কে চাচা হন।

ভু’ক্তভোগীর পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্কুলছাত্রীর পরিবারটি গরিব। আর এ সুযোগে ভু’ক্তভোগীকে প্রতিবেশী গ্রাম পু’লিশ বাবুল হোসেন ফেলু বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকার ধ’র্ষণ করেন। এতে অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে ওই কি’শোরী। এদিকে গ’র্ভধারণের পর স্কুলছাত্রী বিয়ের কথা বললে কোনো সাড়া দিতেন না বাবুল।

১১ জুন বিয়ে করবে বলে তাকে জয়পুরহাট জে’লায় নিয়ে যান বাবুল। সেখান এক বাড়িতে হাতুড়ে চিকিৎসকের দ্বারা তার গ’র্ভপাত করান। ঘ’টনা ধা.মাচা’পা দিতে এবং মীমাংসার জন্য চা’প দিতে থাকেন অ’ভিযুক্ত। এরপরও বি’ষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।

পরে শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় সালেম মোহাম্ম’দ, আজিজার এবং অ’ভিযুক্তের বড় ভাই সাইদুল হোসেন মেলেটারি ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা দিয়ে ভু’ক্তভোগীর পরিবারের স’ঙ্গে সমঝোতার জন্য প্রস্তাব দেন বলে জানা যায়। কিন্তু ভু’ক্তভোগীর পরিবার সমঝোতা মানতে নারাজ। ঘ’টনার পর থেকে অ’ভিযুক্ত গ্রাম পু’লিশ বাবুল হোসেন ফেলু এলাকায় নেই।

ভু’ক্তভোগী স্কুলছাত্রী অভিযোগ করে জানায়, বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তার স’ঙ্গে একাধিকবার শা’রীরিক সম্প’র্ক করেন প্রতিবেশী বাবুল হোসেন ফেলু। অ’ন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর বিয়ের জন্য তাকে বার বার বলার পরও কোনো সাড়া মিলত না। অবশেষে গ’র্ভের স’ন্তান ন’ষ্ট করলে তাকে বিয়ে করবে বলে জানানো হয়। ১১ জুন জয়পুরহাট জে’লায় এক হাতুড়ে ডাক্তারের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরদিন শুক্রবার (১২ জনু) গ’র্ভের স’ন্তান ন’ষ্ট করা হয়। কিন্তু এখন আর বিয়ে করেত চাচ্ছে না বাবুল। উল্টো বিভিন্নভাবে তার পরিবার হু’মকি দিচ্ছে।

অ’ভিযুক্তের বড় ভাই সাইদুল হোসেন মেলেটারি বলেন, উদ্দেশ্যমূ’লকভাবে তার ভাইকে ফাঁ’সানো হচ্ছে। কিছু টাকা নেয়ার জন্য আমাদের বি’রুদ্ধে গুজব রটানো হচ্ছে।

পাহাড়পুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, ওই গ্রাম পু’লিশ ঘ’টনার স’ঙ্গে জ’ড়িত কিনা জানা নেই। তবে আরো কয়েকজন ঘ’টনার স’ঙ্গে জ’ড়িত বলে শুনেছি। ওই গ্রাম পু’লিশ যদি জ’ড়িত থাকে তাহলে পরিষদের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

বদলগাছী থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) চৌধূরী জোবায়ের আহম্ম’দ বলেন, শনিবার (১২ জুন) রাতে ভু’ক্তভোগীর মা বা’দী হয়ে বাবুল হোসেন ফেলুকে আ’সামি করে মা’মলা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here