স্বা’মীর গ’লায় অ’স্ত্র ঠেকিয়ে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ‘ধ’র্ষণ’

0
165

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- চাঁদপুরের রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের দুর্গম লক্ষ্মীরচরে এক গৃহবধূ (৩০) সংঘবদ্ধ ধ’র্ষণের শি’কার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এই ঘ’টনার পর দুইদিন ধরে অ’বরুদ্ধ ছিল তার পরিবার। পরে গত সোমবার গ্রাম পু’লিশের সাহায্যে তারা ওই চর থেকে ট্রলারে করে পা’লিয়ে জে’লা শহরে এসে আশ্রয় নেন।

ধ’র্ষণের শি’কার ওই গৃহবধূকে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘ’টনায় ভু’ক্তভোগীর স্বা’মী চারজনের নাম উল্লেখ করে অ’জ্ঞাত আরও দুইজনসহ মোট ছয়জনের বি’রুদ্ধে থানায় ধ’র্ষণ মা’মলা দা’য়ের করেছেন।

দুই স’ন্তানের জননী ওই গৃহবধূর বরাত দিয়ে পু’লিশ জানায়, শনিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ৭/৮ জনের একদল দু’র্বৃত্ত তাদের ঘরের দরজা ভে’ঙে ভে’তরে প্রবেশ করে এবং তার স্বা’মীকে গ’লায় ধারাল অ’স্ত্র ঠেকিয়ে পর্যায়ক্রমে তাকে ধ’র্ষণ করে। ঘ’টনা জানাজানি হলে তার গোটা পরিবারকে গুম করা হবে বলেও হু’মকি দেয় দু’র্বৃত্তরা। এছাড়া ওই গৃহবধূ যাতে চিকিৎসা না নিতে পারে সেজন্য ওই পরিবারের সবাইকে দুইদিন অ’বরুদ্ধ করে রাখা হয়।

গ্রাম্য সালিশে ধ’র্ষকদের প্রকাশ্যে জুতা পেটা করা হলে দু’র্বৃত্তরা আবারো ওই বাড়িতে হা’মলা চা’লায়। শেষ পর্যন্ত গ্রাম পু’লিশের সহায়তায় সোমবার চাঁদপুর শহরে আশ্রয় নেয় পরিবারটি। পরে সদর থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসিমুদ্দীনের সহযোগিতায় ওই গৃহবধূকে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

ধ’র্ষণের শি’কার গৃহবধূ বলেন, রাতের আঁধারে তারা ঘরে ঢুকে গ’লায় অ’স্ত্র ঠেকিয়ে জানে মে’রে ফেলার হু’মকি দিয়ে পাশের রুমে নিয়ে ধ’র্ষণ করে।তাদের হাতে পায়ে ধরে মাফ চাইলেও রেহাই না দিয়ে তারা নি’র্মমভাবে একের পর এক সবাই এই ঘ’টনাটি ঘটিয়েছে। লোকলজ্জার ভ’য়ে আত্মহ’ত্যা করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু স’ন্তান থাকায় নিজের সি’দ্ধান্ত পরিবর্তন করেছি। এখন শুধু প্রশাসনের কাছে একটাই দাবি, ধ’র্ষকদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূ’লক শা’স্তি দেয়া হোক।

এ বি’ষয়ে রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারী বলেন, ‘ধ’র্ষণের ঘ’টনাটি দু:খজনক। ’ তবে এ নিয়ে আর কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

এ ঘ’টনায় যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পু’লিশ সুপার মাহবুবুর রহমান।

চাঁদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পু’লিশ সুপার জাহেদ পারভেজ চৌধুরী বলেন, মা’মলাটির ত’দন্ত এবং অ’ভিযুক্ত আ’সামিদের দ্রু’ত গ্রে’প্তারের জন্য সদর মডেল থানার ওসি (ত’দন্ত) হারুনুর রশিদকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এলাকায় ঘুরে এসে ওসি (ত’দন্ত) হারুনুর রশিদ বলেন, ‘আমরা মঙ্গলবার বিকালে ঘ’টনাস্থলে গিয়েছিলাম। তবে আমাদের উপস্থিতি টের পেয়ে আ’সামিরা সবাই পা’লিয়ে যায়। তাদের গ্রে’প্তারের জো’র চেষ্টা চলছে।’

ধ’র্ষিতার চিকিৎসা ও পরীক্ষা নিরীক্ষা সম্প’র্কে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সুজাউদৌলা রুবেল জানান, নি’র্যাতিতার শা’রীরিক অবস্থা এখন বেশ স্থিতিশীল। ধ’র্ষণের আলামত নিশ্চিত হবে তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হবার পরে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here