মে’য়েরা ছেলেদের দেখলে প্রথমে কোথায় নজর দেয়, জানলে লজ্জা পাবেন !

0
98

বার্তা টিভি নিউজ ডেস্ক- প্রথম দর্শন হয়তো কয়েক মুহূর্তের ঘ’টনা, কিন্তু এতেই নির্ধারিত হয়ে যেতে পারে সম্প’র্কের গতিপথ। তাই একজন পুরু’ষ যদি জানেন যে, না’রীরা পুরু’ষের ঠিক কোন বি’ষয়গুলো প্রথম দর্শনেই লক্ষ করেন, তা হলে সে বি’ষয়ে সচেতন থাকতে পারেন তিনি।

অনেক না’রীই প্রথম দেখার কয়েক মিনিটেই একজন পুরু’ষকে মেপে ফেলার চেষ্টা করেন। দর্শনদারির ভিত্তিতেই এই মাপামাপি। উচ্চতা, ওজন এবং সামগ্রিক শা’রীরিক আ’কর্ষণীয়তার পাশাপাশি পুরু’ষের হাসি, রসবোধ ও আত্মবিশ্বাস লক্ষ করেন না’রী। পুরু’ষের মনোদৈহিক যে ছয়টি বি’ষয় না’রীরা প্রথম দেখাতেই লক্ষ করেন, সেগুলো হল-

শা’রীরিক আকৃতি

না’রী প্রথমেই যা কিছু খেয়াল করেন সে তালিকার প্রথম’দিকেই আছে উচ্চতা এবং ওজন। কোনো পুরু’ষ খুব বেশি লম্বা, মো’টা বা খাটো হলে তাঁর এই শা’রীরিক গঠনের কারণে শুরুতেই তাঁর বি’ষয়ে একটা সি’দ্ধান্তে চলে আসতে পারেন কোনো কোনো না’রী।

ফলে তাঁর অন্য মানবিক গুণাবলি লক্ষ করার বি’ষয়ে আ’গ্রহ হা’রিয়ে ফেলতে পারেন একজন না’রী। অবশ্য না’রী তাঁর নিজের উচ্চতা এবং ওজনের নিরিখেই পুরু’ষের এই শা’রীরিক বৈশিষ্ট্যের গ্রহণযোগ্যতা বিচার করেন।

আকর্ষণী ক্ষ’মতা

চেহারার সৌন্দর্য হচ্ছে সেই গুণের নাম যা জ’ন্মসূত্রে পাওয়া। কিন্তু কেবল সুন্দর হলেই তো হবে না। একজন পুরু’ষ নিজের কতটা যত আত্তি করেন, সেটা খেয়াল করেন না’রী। চুল, নখ থেকে শুরু করে কাপড়চোপড় এবং পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার বি’ষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায় রাখেন না’রীরা।

একজন পুরু’ষ যদি নিজের এইটুকু দেখভাল করতে না পারেন, তা হলে তাঁর অন্য গুণাবলি খুঁজে দেখার জন্য খুব একটা ক’ষ্ট করতে রাজি হবেন না না’রী। নিজেকে উপস্থাপনের শিল্পেই আকর্ষণী ক্ষ’মতা দেখানোর সুযোগ পেতে পারেন একজন পুরু’ষ।

মুখের হাসি

একনজরে দেখে নিয়ে মেপে ফেলার পর পুরু’ষের মুখের হাসি দেখার অপেক্ষায় থাকেন না’রী। হাসবার ক্ষ’মতা, বিশেষত দেখা হওয়ার প্রথম কয়েক মিনিটের মধ্যেই পুরু’ষের হাসি না’রীর কাছে একটা স্বাগত বার্তার মতো। অবশ্য হাসবার আগে মাথায় রাখতে হবে নিজের দাঁতের কথাও।

অপরিচ্ছন্ন দাঁত নিয়ে কোনো না’রীর সামনে হাসলে লাভের চেয়ে লোকসানই বেশি হবে। আর দাঁতের অন্য কোনো সমস্যা থাকলেও সেটা সারাতে দন্ত্য চিকিত্সকের কাছে ঘুরে আসাই ভালো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here