পৈতিক সম্পত্তির মালিকানা পাওয়া নিয়ে বিবাদ। সেই কারণে মায়ের ন’গ্ন ছবি আত্মীয় স্বজনের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ছড়িয়ে দিল ছে’লে।

0
146

এই অ’ভিযোগে ৫০ বছরের এক ব্যক্তিকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। খবর আনন্দবাজারের।

সম্প্রতি এই ঘটনা ঘটেছে ভা’রতের রাজস্থানে। ঘটনার কথা সোমবার জানানো হয়েছে পু’লিশের তরফে।

মায়ের ন’গ্ন ছবি ছড়ানোয় অ’ভিযু’ক্ত ওই ব্যক্তির নাম দীপক তিওয়ারি (৫০)।

আ’দালতে পেশ করা হলে বিচারক তাকে বিচার বিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

পু’লিশ জানিয়েছে, ২০ দিন আগে মা’রা গিয়েছেন ওই ব্যক্তির বাবা। তার পরই মায়ের সঙ্গে সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ।

ছে’লের ইচ্ছা, বাবার সম্পত্তি তার নামে লিখে দিন মা। কিন্তু মা রাজি না হওয়ায় আত্মীয় স্বজনের কাছে মায়ের বদনাম করার

মতলব এঁটেছিলেন দীপক। সেই মতো মায়ের ন’গ্ন ছবি ছড়িয়ে মাকে ব্ল্যাকমেল করে সব সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে চেয়েছিলেন তিনি।

পু’লিশে করা অ’ভিযোগে দীপকের মা ৭৫ বছরের ওই বৃদ্ধা জানিয়েছেন, ১৩ মে তিনি যখন তার স্বামীর পারলৌকিক কাজ করছিলেন, তখন ছে’লে এসে কোনও বস্তু তার গায়ে স্প্রে করে দেয়। তাঁর সারা গা চুলকাতে শুরু করে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি বাথরুমে গিয়ে স্নান করেন। সে সময়ই লুকিয়ে তার ন’গ্ন ছবি তুলেছিল ছে’লে।

পরে সেই ছবি দীপক পাঠিয়ে দেয় আত্মীয় স্বজনের কাছে। আত্মীয়দের কাছে ন’গ্ন ছবির ব্যাপারে জানতে পেরে পু’লিশের দ্বারস্থ হন ৭৫ বছরের ওই বৃদ্ধা। অ’ভিযোগ পেয়ে শনিবার দীপককে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ। তাঁর বি’রুদ্ধে তথ্যপ্রযু’ক্তি ও ভা’রতীয় দ’ণ্ডবিধির বেশ কয়েকটি ধারায় মা’মলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পু’লিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here