মিতু হ’ত্যা: স্বামী বাবুলের নির্দেশ প্রমাণের পরও সুরাহা হয়নি মা’মলার

0
249

চট্টগ্রামের চাঞ্চল্যকর মিতু হ’ত্যাকাণ্ডের সুরাহা হয়নি চার বছরেও। এখন পর্যন্ত মা’মলার অভিযোগপত্রই জমা দেয়নি পু’লিশ। এ খু’নের সঙ্গে স্বামী সাবেক পু’লিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের সরাসরি সম্পৃক্ততার অভিযোগ উঠেছে বারবার। সম্প্রতি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর হাতে আসা একটি ফোনকলেও বাবুলের নির্দেশ দেয়ার প্রমাণ পাওয়ার কথা উঠে এসেছে।

গত ২০১৬ সালের ৫ জুন। অন্যদিনের মতোই ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে চট্টগ্রামের জিইসি মোড়ে যাচ্ছিলেন মাহমুদা আক্তার মিতু। তিন মোটরসাইকেল আরোহী হঠাৎই ধাক্কা দিয়ে ফে’লে দেন তাকে। শি’শু স’ন্তানের সামনেই গু’লি করে ও কু’পিয়ে হ’ত্যা করা হয় মিতুকে।

ঘটনা অন্যদিকে মোড় নেয় যখন জানা যায়, হ’ত্যায় অংশ নেয়া মুসা নামে একজন ছিলেন মিতুর স্বামী এসপি বাবুলেরই সোর্স।

এরপর মিতুর বাবা পু’লিশের সাবেক পরিদর্শক অভিযোগ করেন, প’রকীয়ার কারণে তার মেয়েকে খু’ন করিয়েছেন বাবুল। এরপরই চাকরি হা’রান তিনি। চট্টগ্রাম মহানগর গো’য়েন্দা পু’লিশ শুরু থেকেই ত’দন্ত করলেও এ বছর মা’মলাটি দেয়া হয়েছে পিবিআইয়ের হাতে।

মিতুর বাবা বলেন, আগের আইও তো আমাদের সঙ্গে কথা বার্তা বলেছিলেন। যদিও তা সন্তোষজনক ছিল না। শুনেছি পিবিআইয়ের কাছে মা’মলা ট্রান্সফার হয়ে গেছে। সেটা আবার আমরা জানি না।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, সম্প্রতি একটি ফোনকলের রেকর্ড হাতে পেয়েছেন তারা। যেখানে বাবুল মুসাকে বলছেন, তুই কুপালি ক্যান? বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদও প্রকাশিত হয়েছে।

ত’দন্তে সবগুলো বি’ষয়ই আমলে নেয়ার কথা জানিয়েছেন পিবিআই-প্রধান বনজ কুমার মজুমদার।

তিনি বলেন, মাস খানেক আগে ডকেটটি হাতে পেয়েছি। এ দু’র্যোগপূর্ণ পরিস্থিতির কারণে এ বি’ষয়টি আলোচনা হয়নি। দায়িত্বপ্রা’প্তকে বলে দিচ্ছি ডকেটটি যেন আমার হাতে সামা’রাইজ করে দেয়। সেটি দেখে আমরা দেখব গত ৪ বছরে কতটুকু অগ্রগতি হয়েছে, তারপর আমরা ত’দন্ত শুরু করব।

এ হ’ত্যাকাণ্ডে জ’ড়িত স’ন্দেহে ৬ জনকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ। দু’জন মা’রা যান কথিত ব’ন্দুকযু’দ্ধে। আর হ’ত্যাকাণ্ডে সরাসরি যে দুটি নাম বারবার এসেছে সেই মুসা ও কালুর এখনও খোঁজ পায়নি পু’লিশ। যদিও মুসার স্ত্রীর দাবি তাকে ঘটনার ১৭ দিন পর আ’টক করে পু’লিশ।

এসব বি’ষয়ে জানতে একাধিকবার ফোন করে এবং ক্ষুদেবার্তা পাঠিয়েও কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি বাবুল আক্তারের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here