Home Blog

ড্রাগ থেকে দূরে থাকার কাহিনী শোনালেন শোয়েব আখতার!

0

ড্রাগ থেকে দূরে থাকার কাহিনী শোনালেন শোয়েব আখতার!
শোয়েব আখতার ছিলেন ক্রিকেট ইতহাসের সবচেয়ে গতিময় পেসার। ১০০ মাইল গতিতে বল করার রেকর্ড রয়েছে তার। এমন গতিতে বল ডেলিভারি দেয়ার যে শ’ক্তি এবং সামর্থ্য, শোয়েব আখতারের মধ্যে তার সবই ছিল প্রাকৃতিক। কোনো ড্রাগ ব্যবহার করে নয়।

এমনটাই দাবি পাকিস্তানি এই গতি তারকার। পাকিস্তান অ্যান্টি নারকোটিক ফোর্সেস (এএনএফ)-এর বার্ষিক ড্রাগ বার্নিং সিরিমোনিতে অতিথি হয়ে বক্তব্য দিতে গিয়ে এ দাবি করেন শোয়েব। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, কখনোই তাকে ড্রাগ স্পর্শ করতে পারেনি।

ক্যারিয়ারের শুরুতেই ড্রাগ ব্যবহারের বি’ষয়টা জানতে পারেন শোয়েব আখতার। সে অ’ভিজ্ঞতা শেয়ার করে তিনি বলেন, ‘যখন আমি ক্রিকেট খেলা শুরু করি,

তখন আমাকে বলা হয়েছিল তুমি কখনোই দ্রু’ত গতির বোলিং করতে পারবে না এবং ১০০ মাইল গতিতে বোলিং করতে পারবে না, যদি ড্রাগ ব্যবহার না কর। কিন্তু আমি তখনই নয় শুধু, সব সময়ই ড্রাগকে প্রত্যাখ্যান করে এসেছি।’

রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস নাম উল্লেখ না করে জানিয়েছেন, পাকিস্তানের এক পেসারের ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গিয়েছিল শুধুমাত্র ড্রাগ ব্যবহার করার কারণে।

পরক্ষণে তিনি মোহাম্ম’দ আমিরের প্রস’ঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, ‘একইভাবে পাকিস্তানি পেসার মোহাম্ম’দ আমিরকেও ইংল্যান্ড সফরের আগে সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু খা’রাপ স’ঙ্গের কারণে সে নিজের পথ থেকে বিচ্যুত হয়ে পড়েছিল।’

শ’রীরের সু-স্বাস্থ্যের জন্য কিছু কর্মকাণ্ডের দিকে জো’র দিতে তরুণ ক্রিকেটারদের পরামর্শ দিয়েছেন শোয়েব আখতার। তিনি বলেন, ‘তরুণ ক্রিকেটারদের উচিৎ হবে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কাছ থেকে উদাহরণ নেয়া। তিনি (ইমরান খান) স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য প্রতিদিনই সকালে হাঁটা-চলা করেন।’

অষ্টম শ্রেণি পাসের সনদ দেবে শিক্ষা বোর্ড!

0

ক’রোনা ভাই’রাস ম’হামা’রির কারণে বাতিল করা অষ্টম শ্রেণির জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার সনদ দেবে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ডগুলো। বুধবার (২৫ নভেম্বর) এক ভার্চ্যুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে একথা জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অষ্টম শ্রেণির সনদ বোর্ড যেভাবে দেয় সেভাবেই দেবে।

ক’রোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো গত ১৭ মার্চ থেকে দফায় দফায় ছুটি বাড়িয়ে আগামী ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একই
কারণে এবছরের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা বাতিল করা হয়।

পরীক্ষা বাতিল করে নিজ বিদ্যালয়ে মূ’ল্যায়ন করে তাদের সবাইকে পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেওয়া হবে।

অষ্টমের এই সমাপনীতে সারাদেশে প্রায় ২০ লাখ শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

বিএনপির মুখে গণতন্ত্র ভূতের মুখে রাম ধ্বনির মতো : সেতুমন্ত্রী

0

জুমবাংলা ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপির উদ্দেশে বলেছেন, বিদেশিদের কাছে নয়, দেশের জনগনের কাছে নালিশ করুন।

বিএনপি কথায় কথায় বিভিন্ন দূ’তাবাসে নালিশ করে আর রাতের আঁধারে দূ’তাবাসের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করে। তাদের মুখে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের কথা মানায় না। তারা কীভাবে স্বাধীনতা রক্ষা করবে?

ওবায়দুল কাদের আজ বুধবার সকালে সং’সদ ভবনস্থ তাঁর স’রকারি বাসভবনে সমসাময়িক বি’ষয় নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

‘আওয়ামী লীগে গণতন্ত্রের চর্চা নেই’ বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, গণতন্ত্রহীনতা এবং অগণতান্ত্রিক চর্চা যাদের দলগত বৈশিষ্ট্য তাদের মুখে একথা ভূতের মুখে রাম নাম ধ্বনির মতো।

বিএনপি ক্ষ’মতায় থাকাকালীন দলে এবং স’রকারে তথাকথিত বিএনপি মার্কা গণতন্ত্র চর্চাতো জাতি দেখেছে।

তিনি বলেন, যাদেরকে ১৯৯৬ সালে জনগণ আন্দোলন করে ক্ষ’মতা থেকে নামিয়েছে তারা এখন গণতন্ত্রের সবক দিচ্ছে। বিএনপির মুখে গণতন্ত্রের কথা হাস্যকর। তারা যা করছে আসলে তা জনগণের সাথে প্র’তারণা।

কাদের বলেন, বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে, রাতের বেলায় কারফিউ, আর নিজ দলে বছরের পর বছর কমিটি গঠনে ব্যর্থ হওয়া। আবার কমিটি গঠন হলেও তা নিয়ে নিজ দলের অফিসে নিজেরা আ’গুন দেয়া।

জ’ন্মলগ্ন থেকে বিএনপি গণতন্ত্রের মুখোশ পরে চললেও তাদের নেতাদের মুখচ্ছবিতে জু’লুমতন্ত্র আর সুবিধাবাদের প্রতিচ্ছবি বার বার ফুটে উঠে।

বিএনপির গণতন্ত্র চর্চার সাফল্য বলতে ‘হাওয়া ভবন প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে মানুষের অধিকার হরণ করে দু’র্নীতি লালন-পালন ও বিকাশ কেন্দ্র।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেতাদের কথা শুনলে মনে হয়, দেশটা তারা স্বাধীন করেছে। আর আওয়ামী লীগ সাইড লাইনে বসে বসে দেখেছে।

বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমেই এসেছে এদেশের স্বাধীনতা এবং দেশের স্বাধীনতার সুরক্ষা আওয়ামী লীগের হাত ধরেই এসেছে।

বিএনপির রাজনীতি এখন জনমুখী নয়,তাদের রাজনীতির মওকা এখন পদ্মা মেঘনা যমুনার তীরের মানুষ নয় উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি এখন তাকিয়ে থাকে টেমস নদীর তীরের দিকে।

বিএনপির নেতৃত্বের কোন সক্ষ’মতা নেই, যেকোনো সি’দ্ধান্ত গ্রহণের, তারা নির্দেশ পালনকারী মাত্র। তাই জনগণ এখন বুঝতে পারছে-পুতুল কোথা থেকে নাচানো হয় আর সুতার টান কোথায়?

এদেশের রাজনীতিতে সততা আর ত্যাগের প্রতিক হচ্ছেন বঙ্গবন্ধু পরিবার উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু পরিবারের হাতে কোনো ভাঙা স্যুটকেস ছিলোনা,

যা থেকে বড় বড় জাহাজ বেরিয়ে আসবে, ছিল শুধু জনগণের ভালোবাসা। এদেশের রাজনীতিতে আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু পরিবার ত্যাগের মহিমায় সমুজ্জ্বল।

তিনি বলেন, ক্ষ’মতা ভাগাভাগি আর উচ্ছৃষ্ট ভোগ করা বিএনপির ঐতিহ্য, আর ভোগ বিলাস দু’র্নীতি, ষ’ড়যন্ত্র বিএনপির মজ্জাগত। বিএনপি ক্ষ’মতাকে নিজেদের ভাগ্যবদলের উৎস মনে করে।

বঙ্গবন্ধু পরিবার নিয়ে মনগড়া কথা এবং মিথ্যাচার বিএনপির বিকৃত মা’নসিকতা আর ইতিহাস বিকৃতির ধারাবাহিকতা মাত্র।

আগামী ২ বছরের জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডব্লিুএইচও, এফএডি এবং ওআইই কর্তৃক ওয়ান হেলথ গ্লোবাল লিডার্স গ্রুপ অন অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল রেজিস্ট্যান্সের (এএমআর) কো-চেয়ারম্যান মনোনীত হওয়ায় দেশের জনগণ ও আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান ওবায়দুল কাদের।

0

অ’ল্প ব’য়সী মে’য়েদেরকে বি’য়ে করার সু’বিধা

খুব বেশি আগের কথা নয়, এই দশক শুরুর অনেক আগে থেকেই আমাদের দেশে বাল্যবিবাহ প্রচলিত। বর্তমানেও যে এই অবস্থার খুব একটা উন্নতি হয়েছে তাও জো’র গ’লায় বলা যাবে না।

জাতিসংঘের সহস্রাব্দ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য বেধে দেয়া যে আঁটটি লক্ষ্যমাত্রা(শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাল্যবিবাহ ইত্যাদি) ছিল তার অধিকাংশ লক্ষ্যমাত্রাই বাংলাদেশ অর্জন করতে সমর্থ হয়েছে(অনেক ক্ষেত্রে

কিন্তু বাল্যবিবাহের ক্ষেত্রে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হয় নি। আপাতদৃষ্টিতে মনে হতে পারে যে, শুধুমাত্র নিম্নবিত্ত শ্রেণীর প্রা’প্তব’য়স্ক পুরু’ষেরাই অপ্রা’প্তব’য়স্ক না’রীদের বিয়ে করে থাকে কিন্তু বিস্ময়কর ত’থ্য হল অপ্রা’প্ত ব’য়স্ক না’রীদের বিবাহের হার উচ্চবিত্ত থেকে নিম্ন-মধ্যবিত্ত সর্বত্রই প্রায় সমান।

একটি পরিসংখ্যানে দেখা যায় বাংলাদেশে ৬৬% মে’য়েদের ১৮ বছর হওয়ার হবার পূর্বেই বিয়ের পিড়িতে বসতে হয়! কিন্তু পুরু’ষেরা কেন তাদের চেয়ে কম ব’য়সী মে’য়েদের সাথেই বিবাহ বন্ধ’নে আবদ্ধ হয় তা কি আমরা ভেবে দেখেছি? চলুন খুঁজে বের করি কারনগুলো-

১। আধিপত্য-সমাজবিজ্ঞানীদের মতে, পুরু’ষেরা সর্বত্র আধিপত্য বিস্তারে অভ্যস্ত। আর তাদের এই আধিপত্য বিস্তারের যে চর্চা তার বৃত্ত থেকে তাদের পরিবার এবং পরিবারের সদস্যরাও বাদ যান না।

আর আমাদের পুরু’ষ শাসিত সমাজে স্ত্রীদের উপর স্বা’মীদের আধিপত্য বিস্তার অত্যন্ত স্বাভাবিক একটি ঘ’টনা। তাই, অল্প ব’য়সী মে’য়েদের সাথে বিবাহ বন্ধ’নে আবদ্ধ হতেই তারা বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে।

২। অস্বস্তিবোধ-বিস্ময়কর হলেও সত্যি, পুরু’ষেরা তার সমব’য়সী মে’য়েদের সাথে সম্প’র্ক স্থাপনে অস্বস্তিবোধ করে। পুরু’ষের সমযোগ্যতা সম্পন্ন না’রীদের নি’য়ন্ত্রণ করা সম্ভব না- এই ধারণাই পুরু’ষকে তার চেয়ে অনেক কম ব’য়সী না’রীকে বিয়ে করতে উদ্বুদ্ধ করে।

৩। কুঁড়িতেই বুড়ি-আমাদের দেশে পুরু’ষেদের সামাজিক ও অর্থনৈতিক সচ্ছলতা লাভ করতে করতে ব’য়স প্রায় ৩০ এর কোঠায় গিয়ে পৌঁছে। আর আমাদের সমাজের প্রচলিত ধারণা যে, মে’য়েরা কুঁড়িতেই বুড়ি হয়ে যায়। তাই, স্বাভাবিকভাবেই স্বা’মী ও স্ত্রীর ব’য়সের ব্যবধান আমাদের সমাজে অনেক বেশি।

মাস্ক পরা নিশ্চি করতে রাজধানীতে অ’ভিযান, জরিমানা

0

এবার রাজধানীতে ক’রোনা ভাই’রাসের দ্বিতীয় ঢেউ নি’য়ন্ত্রণে স’রকারের নির্দেশনা অনুযায়ী মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে অ’ভিযান পরিচালনা করার পাশাপাশি জরিমানা করা হচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে কারওয়ান বাজারে নির্বাহী ম্যা’জিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আ’দালত এই অ’ভিযান পরিচালনা

করেন।এ সময় বেশ কয়েকজনকে ১০০ টাকা করে জরিমানা করা হয়। অসচেতনতার কারণেই মাস্ক পরছে না বলে জানান তারা।এদিকে যে কোনও সেবা পেতে মাস্ক পরিধান বা’ধ্যতামূ’লক উল্লেখ করে নির্বাহী ম্যা’জিস্ট্রেট জানান, ক’রোনা

নি’য়ন্ত্রণে মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে শিগগির আরও ক’ঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি জরিমানার পরিমাণ কয়েক গুণ বাড়ানো হবে। অ’ভিযানকালে যাদের মাস্ক নেই তাদের মধ্যে মাস্ক বিতরণও করা হয়।

এইচএসসির ফল প্রকাশে শিক্ষার্থীরা পেলো নতুন সু’খবর

0

ক’রোনা ম’হামা’রীর কারণে এবার অনুষ্ঠিত হয়নি এইচএসসি পরীক্ষা। এক্ষেত্রে এসএসসি পরীক্ষার ফলের ৭৫ শতাংশ ও জেএসসি পরীক্ষার ফলের ২৫ শতাংশ গণনা করে এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে।

সে হিসেবে নতুন এই ঘোষণাটি ফলপ্রত্যাশী এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য বড় সু’খবরই বলা চলে। কারণ অনেকেই জেএসসি পরীক্ষার ফলাফলের উপর (৫০ শতাংশ) ভিত্তি করে রেজাল্ট প্রকাশের ক্ষেত্রে ‌‘নাখোশ’ ছিলো।

বুধবার এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল তৈরিতে পরীক্ষার্থীদের এসএসসির ফল অধিক প্রাধান্য পাবে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা এসএসসি পরীক্ষা কিছুটা গুরুত্বের সাথে অংশ নেন। এটি এইচএসসিরও কাছে। তাই এসএসসির ফলের ও’পর আমরা জো’র দেবো। পরীক্ষার্থীদের এসএসসির ফলের ৭৫ শতাংশ ও জেএসসির ফলের ২৫ শতাংশ গণনা করে এইচএসসির ফল প্রকাশ করা হবে। ডিসেম্বর মাসেই ফল প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরো জানান, যখন ফল প্রকাশ করা হবে তখন কিভাবে ফল তৈরি করা হয়েছে তা জানিয়ে দেয়া হবে।

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ও কারিগরির শিক্ষার্থীদের জেএসসি পরীক্ষা হয় না। তাই শুধু এসএসসির ফলেই এসব শিক্ষার্থীদের ফল দেয়া হবে।

বাবার সেবা করতে গিয়ে ক’রোনায় আ’ক্রান্ত নায়ক ফারুকের মে’য়ে

0

ঢাকাই সিনেমার কালজয়ী নায়ক ও জাতীয় সং’সদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক ক’রোনায় আ’ক্রান্ত।

সম্প্রতি তিনি সিঙ্গাপুর থেকে উন্নত চিকিৎসা নিয়ে দেশে ফিরেছিলেন। কয়েকটা দিন ভালোই কাটছিলো।

কিন্তু ১৫ নভেম্বর তার শ’রীরে ক’রোনা ভাই’রাস ধরা পড়ে। এরপর তাকে পরদিন সন্ধ্যা ৬টায় কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখানে সার্বক্ষণিক তার স’ঙ্গী হয়ে আছেন স্ত্রী ফারহা’না ফারুক।

তবে বাসায় থাকাকালীন বাবার দেখাশোনা করতে গিয়ে ক’রোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন ফারুকের মে’য়ে ফারিহা তাবাসসুম পাঠান তুলসি।

এই অভিনেতার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত পাঁচদিন ধরে ক’রোনায় আ’ক্রান্ত তুলসি।

বাবার সংস্পর্শে গিয়েই তার শ’রীরে ক’রোনা ভাই’রাস ছড়িয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে তার শা’রীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

তিনি বাসাতেই আইসোলেশনে রয়েছেন। চিকিৎসকদের পরামর্শে খাবার ও ও’ষুধ গ্রহণ করছেন। তবে ক’রোনা থেকে মুক্ত আছেন নায়ক ফারুকের একমাত্র পুত্র শরৎ।

আরও পড়ুন=২০২১ সালের জুন মাসে যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত হতে যাচ্ছে স্বপ্নের পায়রা সেতু। ইতোমধ্যে সেতুটির ৭৫ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সেতুটি চালু হলে দক্ষিণ অঞ্চলের অর্থনৈতিক পরিবর্তনের পাশাপাশি নিরবচ্ছিন্ন সড়ক ব্যবস্থা চালু হবে। জানা গেছে,

২০১৬ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পায়রা নদীর ও’পর পায়রা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এরপর বরিশাল-পটুয়াখালী সড়কের পায়রা নদীর ও’পর সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান লনজিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কনস্ট্রাকশন সেতুটি নির্মাণে কাজ করছে। এক হাজার ৪৭০ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ১৯.৭৬ মিটার প্রস্থের এই সেতুটি ক্যাবল দিয়ে দুই পাশে সংযুক্ত করা থাকবে।

ফলে নদীর মাঝখানে মাত্র একটি পিলার ব্যবহার করা হয়েছে। এতে নদীর স্বাভাবিক প্রবাহ ঠিক থাকবে। নির্ধারিত সময়ে সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ করতে দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীরা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন।

স্ত্রীর অধিকার পেতে স্বা’মীর বাড়িতে কলেজছাত্রীর অ’নশন

0

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় স্ত্রীর অধিকার পেতে মেহরিন সুলতানা নামে এক কলেজছাত্রী তার স্বা’মীর বাড়িতে অ’নশনে বসেছেন। আজ মঙ্গলবার দুপুর থেকে ওই কলেজছাত্রী উপজে’লার দিয়ারপাড়া গ্রামের কলেজছাত্র খায়রুল ইসলামের বাড়িতে অ’নশন শুরু করেন।

তারা দুজনেই এবছর ভাঙ্গুড়া হাজী জামাল উদ্দিন ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন।

তবে কলেজছাত্রীর অ’নশনের পর থেকেই স্বা’মী খাইরুল ইসলাম প’লাতক রয়েছেন। এ ঘ’টনায় মেহরিনের পরিবার থানা পু’লিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।জানা যায়, কলেজে এইচএসসি দ্বিতীয়

বর্ষে অধ্যায়নের সময় গত বছরের নভেম্বর মাসে উপজে’লার মন্ডতোষ ইউনিয়নের দিয়ারপাড়া গ্রামের আকবর আলীর ছেলে খায়রুল ইসলামের স’ঙ্গে উপজে’লার সদর ইউনিয়নের নৌবাড়ীয়া গ্রামের রবিউল ইসলামের মেয়ে মেহরিন সুলতানার প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে ওঠে।

একপর্যায়ে তাদের মধ্যে শা’রীরিক সম্প’র্ক স্থাপনে এ বছরের মার্চ মাসে অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন মেহরিন।

কিন্তু বি’ষয়টি ধা.মাচা’পা দিতে খাইরুল ইসলামের বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে মেহরিন গ’র্ভের স’ন্তান ন’ষ্ট করে ফে’লেন।পরে দু’জনে এপ্রিল মাসের ৫ তারিখে পাবনার আ’দালতে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে এবং একই দিনে ৭ লাখ টাকা দেনমোহরে কাজী অফিসের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধ’নে আবদ্ধ হন।

কিন্তু বি’ষয়টি তারা দু’জনেই পরিবারের কাছে গো’পন রাখেন। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই মেহরিন শ্বশুরবাড়ি যেতে খায়রুলকে চা’প দিতে থাকেন।

এ অবস্থায় গত দেড় মাস ধরে খাইরুল কৌশলে মেহরিনকে এড়িয়ে চলতে থাকে। নিরুপায় হয়ে মেহরিন আজ মঙ্গলবার দুপুরে খাইরুলের বাড়ি গিয়ে স্ত্রীর দাবি করেন।

এ সময় খাইরুল বাড়ি থেকে পালিয়ে যান এবং পরিবারের অন্য সদস্যরা মেহরিনকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। তবে মেহরিন বাবার বাড়ি না ফিরে স্বা’মীর বাড়িতেই অবস্থান করে অ’নশন শুরু করেন।

অ’নশনকারী মেহরিন জানান, স্ত্রীর অধিকার না পেলে তিনি বাড়ি ফিরবেন না। স্বা’মী এবং তার বাড়ির কেউ মেনে না নিলে তিনি ওই বাড়ির বারান্দাতেই থাকবেন। তবুও তিনি কোনোভাবেই ফিরে যাবেন না।

এদিকে খাইরুলের বোন আশা পারভীন বলেন, মেয়েটি ষ’ড়যন্ত্র করে আমার ভাইকে ফাঁ’সানোর চেষ্টা করছে। মেয়েটির স্বভাব চরিত্র ভালো নয়। তাই তাকে কোনোভাবেই পরিবারের পক্ষ থেকে বাড়ির গৃহবধূ হিসেবে মেনে নেওয়া সম্ভব না। প্রয়োজনে আমরা থানা প্রশাসনের সহায়তা নেব।

দিয়ারপাড়া গ্রামের ইউপি সদস্য স্বপন আলী বলেন, মেয়েটির অ’নশনের কথা শুনে আমি ঘ’টনাস্থলে গিয়েছিলাম। তবে সম্পূর্ণ বি’ষয়টি শুনে আমাদের পক্ষে সমাধান দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছি।

ভাঙ্গুড়া থানা পু’লিশের এসআই মোদাচ্ছের হোসেন ঘ’টনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মেয়েটির পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ছেলের বাড়ি গিয়ে সবার স’ঙ্গে কথা বলা হয়েছে। এখন বি’ষয়টি সামাজিকভাবে সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। সমাধান না হলে বি’ষয়টি ত’দন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা

রাতের ছোট্ট একটা কাজ চিরতরে মুছে দিবে মুখের সব দাগ

0

আমর’া অনেককে দেখেছি যাদের চেহারা অনেক সুন্দর তবে পুরো চেহারা বিশ্রী সব কালো দাগে ভরা। তাদের চোখের নীচে, গালে, কপালে রয়েছে অ’প্রত্যাশিত কালো দাগ।

ফলে তার সুন্দর চেহারার সৌন্দর্য ফুটে উঠেনা। সাধারণত ব্রণ, ফুসকুড়ি সেরে উঠার পর মুখের ত্বকে এই ধরনের কালো দাগ রেখে যায়।যাদের এইসব কালো দাগ রয়েছে তারা নিশ্চয়

এইসব দাগে বিশ্রী লাগার কারণে হীন্যমন্যতায় ভুগছেন।কিন্তু রাতের ছোট্ট একটা রুপচর্চা আপনার মুখের এই কালো দাগ চিরতরে মুচে দিবে। আসুন জেনে নিয়।মুখের দাগ দূর করতে ব্যবহার করুণ লেবু।,

লেবু প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসাবে কাজ করে। তবে লেবু এই রূপচর্চাটি কেবল রাতের বেলায় করতে হবে এই কারণে যে সূর্যের আলো আপনার ত্বকে রিঅ্যা’কশন করতে পারে।রাতের বেলায় রূপচর্চাটি করলে সূর্যের আলো বা গরমে ত্বকের ক্ষ’তি হওয়ার সম্ভাবনা নেই

এবং ত্বক সম্পূর্ণ ৮-১০ ঘণ্টা পাচ্ছে দাগ দূর করার জন্য।প’দ্ধতি: দুটি প’দ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন আপনি। যদি আপনার ত্বক হয়ে থাকে স্বাভাবিক, তাহলে মাত্র ৫ মিনিটের একটি কাজ করতে হবে আপনাকে।

যদি শুষ্ক বা সেনসিটিভ হয়ে থাকে, তাহলে সময় লাগবে ৩০ মিনিট।প্রথমে মুখ খুব ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন।এরপর যদি আপনার ত্বক স্বাভাবিক বা তৈলাক্ত হয়, তাহলে তাজা পাকা লেবুর রস

(যে লেবু পেকে হলদে হয়ে গেছে, অর্থাৎ লেমন) সরাসরি মুখের কালো দাগে লাগিয়ে নিন। লেবুর রসের সাথে সামান্য মধুও মিশিয়ে নিতে পারেন।তারপর শুকাতে দিন। এবং লেবুর রস মুখে নিয়েই ঘু’মিয়ে যান।

স্বাভাবিক বা তৈলাক্ত ত্বকে কোন সমস্যা হবে না। সকালে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ মুছে নিন।আর যদি শুষ্ক বা সেনসিটিভ ত্বক হয়, তাহলে পাকা লেবুর রসের সাথে মুলতানি মাটি ও মধু মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ ধোয়া মুখে লাগিয়ে ৩০ মিনিট রাখু’ন।তারপর ধুয়ে

ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের কালো দাগ মিলিয়ে যাব’ে।তবে মনে রাখতে হবে যে, ত্বকে লেবুর রস দেয়ার পর যদি কোন রকম অস্বস্তি অনুভব করেন, তাহলে অবিলম্বে মুখে ধুয়ে ফেলুন এবং পুনরায় ব্যবহার করবেন না।

এভাবে রাতেরবেলায় কিছুটা সময় খরচ করে ছোট্ট এই রুপচর্চাটি করে দেখু’ন দেখবেন আপনার মুখের কালো দাগ চিরতরে হা’রিয়ে গেছে। আপনি ফিরে পাবেন আপনার হা’রানো সৌন্দর্য।

অবশেষে আলোচিত সেই মাসুদ রানার নায়িকা হচ্ছেন পূজা চেরী

0

বেশ আ’লোচনার জ’ন্ম দিয়ে শুরু হ’য়েছি’লো তু’মুল জনপ্রি’য় গো’য়ে’ন্দা চরিত্র মা’সুদ রানা’কে নিয়ে সি’নেমা তৈ’রির যাত্রা।

ঘো’ষ’ণার পর কে’টে গেছে অ’নেক সময়। এখনো শু’টিংয়ে নামতে’ পারে’ননি ছবির পরি’চা’লক সৈক’ত নাসির।

অনে’ক বি’তর্কে’র পর মাসুদ রানা চরি’ত্রে রা’সেল রা’নাকে পা’ওয়া গেলেও বাকি ছি’লো এ

ছবির নায়ি’কা নি’র্বাচন।জানা গেল, এ প্র’জ’ন্মের মেধাবী ও চা’হিদাস’ম্পন্ন অভি’নেত্রী পূজা চেরীই হতে চলেছেন দুর্ধর্ষ এজে’ন্ট মাসু’দ রানার প’র্দাস’ঙ্গিনী। এরইম’ধ্যে তার ফ’টোশু’টও শেষ হয়ে’ছে।

এ ছবির প্রযোজ’না প্রতি’ষ্ঠান জাজ মাল্টি’মিডি’য়ার একটি’ ঘ’নি’ষ্ট একটি সূত্র এই ত’থ্য নি’শ্চি’ত করেছে।তবে এই বি’ষয়ে কিছুই জা’নেন না বলে দাবি

করেছে’ন সৈকত নাসির। তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার বলেন, ‘এ ছবির শিল্পী নির্বাচনের স’ঙ্গে আমি জ’ড়িত নই। তাই বলতে পারছি না। এটা সিনে’মার প্রযোজ’না প্রতি’ষ্ঠান দে’খা’শোনা করছে।নায়িকা যেই হোক, তার জন্য শুভ’কামনা

থাকবে। আশা কর’বো পাঠ’কপ্রিয় ‘মাসুদ রানা’-কে নিয়ে স’ফল জার্নি হবে আমা’দের।’এদিকে এ ব্যাপা’রে জান’তে পূজা চেরীর স’ঙ্গে যোগা’যোগ করা হলে বুধ’বার রাতে দেয়া এক সা’ক্ষাৎকারে ‘নি বলেন, ‘চূড়া’ন্ত না হওয়া পর্যন্ত কিছুই নিশ্চিত নয়।

’প্রস’ঙ্গত, কাজী আ’নোয়া’র হো’সেন রচিত জনপ্রিয় গো’য়েন্দা চ’রিত্র মাসুদ রা’নাকে নিয়ে ঢা’লি’উডে নি’র্মিত হচ্ছে দু’টি সিনেমা। এর একটি পরিচা’লনা করবেন সৈ’কত নাসির।এতে মা’সুদ রানা চ’রি’ত্রে

অভি’নয় করবেন ‘কে হবে মা’সুদ রানা’র চ্যা’ম্পিয়ন রাসেল রানা। এ সিনেমায় দেখাযে’তে পারে ‘ঢাকা অ্যা’টাক’খ্যাত তাস’কিন র’হমা’নকে।এদিকে পূজা চেরী অভিনীত ‘শান’, ‘জিন’ ছবি’গুলো রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। নতুন করে তিনি কা’জ শুরু করবেন ‘হৃদিতা’ সিনেমায়।